পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে কড়া বার্তা বিদেশ মন্ত্রকের, বললেন 370 রদ ভারতের সম্পূর্ণ আভ্যন্তরীণ বিষয়..

গতকাল পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক সম্পর্কে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয় আর তারপরই আজ সেই বিষয় নিয়ে  প্রতিক্রিয়া বেরিয়ে এলো ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে। আজ এস জয়শঙ্করের দফতর থেকে স্পষ্ট ভাষায় বুঝিয়ে দেওয়া হল, কাশ্মীর সমস্যা সম্পূর্ণ ভারতের নিজস্ব অভ্যন্তরীণ বিষয়। গতকাল পাকিস্তান যে সব সিদ্ধান্তগুলি নিয়েছে তা খুব দুঃখজনক বিষয়। দুই দেশের কূটনৈতিক আলোচনার পথ খোলার রাখার জন্য আরও একবার তাদের সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করার বার্তা দেওয়া হয়।

এই দিন সাউথ ব্লক থেকে এটা স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় যে জম্মু-কাশ্মীরের 370 ধারা রদের বিষয়টি সম্পূর্ণ ভারতের নিজস্ব অভ্যন্তরীণ বিষয়। আর এই বিষয় নিয়ে অন্য কোন দেশের নাক না গলানোই ভালো। দেশের সংবিধানে সার্বভৌমত্ব বিষয় ছিল, আছে, থাকবে বলে পাকিস্তানকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। ভারতের তরফ থেকে এই বিষয়ে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয় ইমরান খানের প্রশাসনকে এই দিন-ভারত বলে কাশ্মীর বিষয়ে ইমরান খানের প্রশাসন যে আচরণ দেখাচ্ছে তাতে সীমান্তে জঙ্গির কার্যকলাপ আরো বেশি ইন্ধন জোগাবে।

গতকাল বুধবার দিন কাশ্মীরের পরিস্থিতির পর্যালোচনা করতে গিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির সঙ্গে বৈঠক করতে দেখা যায় ইমরান খানকে। আর এই বৈঠক সম্পূর্ণ করার পর পাক প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বিবৃতি করে জানানো হয়েছে ভারতের সাথে আগামী দিনের পদক্ষেপের কথা। যেগুলি হলো নিম্নরুপ – 1) ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক কমানো হবে পাকিস্তানের তরফ থেকে।
2) ভারতের সাথে সমস্ত বাণিজ্যিক সম্পর্ক গুলিকে বাতিল করা হবে।
3) ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সমঝোতাগুলি নিয়ে করা হবে পর্যালোচনা।
4) এমন কী জম্মু-কাশ্মীরের বিষয়টি রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে জানাবে পাকিস্তান।
5) পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসের দিন অর্থাৎ 14 ই আগস্ট দিনটি পাকিস্তান কাশ্মীরিদের সমর্পণ করবে, এবং তার পরদিন অর্থাৎ ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিন পাকিস্তান ওই দিনটি কালো দিবস (Black day) হিসাবে পালন করবে।

6) বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রে থাকা পাক কূটনীতিবিদদের কাশ্মীরে ভারতের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলতে হবে।
7) এমন কী এই দিন সেনাকে সতর্ক থাকার পর্যন্ত নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। অন্যদিকে  ভারত সরকার দাবি করে এই সিদ্ধান্তটিকে একতরফা হিসাব নেয়া হয়েছে পাকিস্তানের তরফ থেকে। প্রসঙ্গত, এমন কিছু বিষয় আছে যেখানে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জড়িয়ে রয়েছে।