বড় ঝাটকা পেল ইমরান খানের সরকার!এবার সৌদি আরব থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হলো 40,000 পাকিস্তানি নাগরিককে

সন্ত্রাসবাদের কারনে আজ পাকিস্তান সারা বিশ্বের কুখ্যাত হয়ে রয়েছে। পাকিস্তানিদের অপরাধমূলক প্রবনতার কারণে বিশ্বের সব জায়গাতে এখন অপরাধীর চোখে দেখা হয় প্রত্যেক পাকিস্তান বাসীকে। এসব কারণেই বিদেশে পাড়ি দেওয়া পাকিস্তানি নাগরিকদের দেশ থেকেও বহিষ্কার করা হয়। আর্থিক এরকমই সৌদি আরবে ঘটেছে। এবার সৌদি আরবের প্রশাসন তাদের দেশে কর্মরত প্রায় 40 হাজারের বেশি পাকিস্তানি নাগরিকদের বহিষ্কার করেছে।

তবে তাদের যে শুধুই এরকমই বহিষ্কার করা হয়েছে তা নয় , সৌদি আরবে মাদকপাচার ,জালিয়াতি, চুরি , সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ, হামলার মতো অপরাধে পাকিস্তানি নাগরিকদের জড়িত পাওয়া গেছে যার কারণেই সৌদি আরবের প্রশাসন এরকম এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে।তবে এই বিষয় নিয়ে সৌদি আরবের মেডিয়ার তরফ থেকে একটি বয়ান বেরিয়ে এসেছে, যেখানে তারা জানিয়েছে আভ্যন্তরীণ বিষয়ক এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন দেশের নিরাপত্তার কারণেই দেশ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে এই পাকিস্তানিদের।

সৌদি আরবের নেওয়া এরকম পদক্ষেপে প্রকাশ পাওয়া যাচ্ছে যে মুসলিম দেশগুলিতেও পাকিস্তানীদের পরিস্থিতি মর্যাদা খুব একটা ভালো নয়। তবে শুধু তাই নয় এর আগেও সৌদি আরবের প্রশাসন পাকিস্তানি ডাক্তারদের ভুয়া বলে ঘোষণা করে সৌদিআরব ছাড়ার নির্দেশ ও দিয়েছিল।সৌদি স্বাস্থ্যমন্ত্র পাকিস্তানের মাস্টার অফ সার্জারি এবং মাস্টার অব মেডিসিন ডিগ্রিকেও কেউ বাতিল করে দিয়েছে।আপনাদের আরো বলে রাখি যে সৌদি আরবের প্রশাসন গত 2012 সাল থেকে 2015 সালের মধ্যে প্রায় 2 লাখ 34 হাজার পাকিস্তানী কর্মীকে দেশ থেকে বহিষ্কার করেছিল। এখন সৌদি প্রশাসনের অপরাধ ক্রাইম গ্রাফিতে পাকিস্তানি নাগরিকের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধি পাচ্ছে যার ফলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এখন দিনদিন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে পাকিস্তানিদের সম্মান আরো হ্রাস পাচ্ছে।

এছাড়া কোন অপরাধমূলক কাজ হলেই পাকিস্তানি দেরই  দায়ী করা হচ্ছে কারণ সমস্ত অসামাজিক কাজের সাথে তাদের কোন না কোন ভাবে জড়িত থাকার লিঙ্ক পাওয়া যাচ্ছে।