অবশেষে পাকিস্তানের পরম বন্ধু চীনও ছেড়ে দিল তাদের সঙ্গ, বললো নিজেদের সমস্যা নিজে বুঝে নিও

‘কাশ্মীর নিয়ে পরিকল্পনা ব্যর্থ হল’ এই কথা নিজের মুখে স্বীকার করলেন পাক সেনাপ্রধান বাজওয়া। এই কথা নতুন নয়, যে কাশ্মীর নিয়ে বরাবরই স্বপ্ন দেখত পাকিস্তান। আর সেই স্বপ্ন আবারও পূরণ হল না পাক সেনার কর্মকর্তা বাজওয়ার। এককথায় বিশ্বজুড়ে এখন পুরো একাকী হয়ে পড়েছে পাকিস্তান।

যখন কাশ্মীরে,পাকিস্থানের অংশে করোনা ভাইরাস মোকাবিলাতে ব্যর্থ সেই দেশের সরকার, তখন পাকিস্তানের আর্মি জেনারেল বাজওয়া খুব বাজে মন্তব্য করে বসলেন কাশ্মীরের বিরুদ্ধে,উঠে এলেন শিরোনামে।

পাকিস্তান অবশ্য এখন তাদের কাশ্মীর পরাজয় স্বীকার করেছেন, পাকিস্তান সেনাবাহিনীর জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া বলছেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পাকিস্তান কাশ্মীরকে আন্তর্জাতিক ইস্যুতে পরিণত করতে ব্যর্থ হয়েছিল, যার সুযোগ ভারত পুরোপুরি নিয়েছিল। পাক সেনা প্রধানের এই মন্তব্য আবার কাশ্মীরকে আন্তর্জাতিক ইস্যু বানানোর চেষ্টা যে সেটা ভারত খুব ভালো ভাবেই বুঝতে পেরেছে , এখন তারা পরাজয় স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে পাকিস্থান।

বাজওয়া তার জনগণের সামনে বলেই চলেছিল যে আমরা জাতিসংঘ এবং ইসলামী সম্মেলন সংস্থা, পুরো বিশ্ব জানে যে পাকিস্তানের এই অংশে এর কোনও সমর্থন পায়নি, যখন থেকে কাশ্মীরি আর্টিকেল 370 সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, পাকিস্তান অস্থির হয়ে পড়েছে! এরকম অবস্থায় বহু বার একের পর এক তার সন্ত্রাসী গোষ্ঠী গুলোকে আগুনের আড়ালে দেখা গেছে!

এলওসি-তে পাকিস্তানের এই ঘৃণ্য প্রতিবাদে ভিত্তিতে উত্তর দিয়েছে ভারতও।আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ভারতের উপর চাপ তৈরি করতে চীন তার প্রভাবকে কাজে লাগিয়েছে, কিন্তু তাতেও এখন ব্যর্থ হয়েছে পাকিস্তান।

এমনিতেই করোনা ভাইরাস প্রভাবের ফলে গোটা বিশ্ব চীনকে বয়কট করার মুডে আছে, সেই জায়গায় চীনের সাথে সঙ্গ দিয়ে কোন লাভ নেই বলে জানিয়েছে ভারত। দুটো দেশই এখন তৎপর ও সজাগ। সীমান্তে সর্বদা চীন এখন অস্থির পরিবেশ তৈরী করার চেষ্টা করছে। তবে ভারতীয় জওয়ানরা সর্বদা সতর্ক। কোন দুঃসাহসিক পদক্ষেপ চীন করলে সাথে সাথে জবাব দিতে প্রস্তুত তারা।