দেশনতুন খবরবিশেষ

নিজেদের দোষ ঢাকতে পাল্টা হুঁশিয়ারি পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের, বললেন আঘাত করলেই পাল্টা জবাবের জন্য…

পাকিস্তানের উপর আঘাত করা হলে পাল্টা জবাব দিতে দু বার ভাববে না পাকিস্তান, ভারতীয় সেনাবাহিনীর সরাসরি অভিযোগে এ কথা বলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এদিকে যখন ভারত জুড়ে পাকিস্তানের ওপর আঘাত হানার আওয়াজ উঠেছে তখন অন্যদিকে প্রত্যাঘাতের সুর চড়ালেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মঙ্গলবার সকালে অর্থাৎ আজ লেফটেনেন্ট জেনারেল কনওয়ালজিত সিং সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন জইস – ই -মহম্মদ পাকিস্তানেরই সন্তান তাই পুলওয়ামায় সেনা জওয়ানদের কনভয়ে যে জঙ্গি হামলা হয়েছে তার পেছনে প্রকৃত হাত রয়েছে পাকিস্তানের। এর সাথে তিনি আশ্বস্ত দেন পাক অনুপ্রবেশ অনেকটাই কমে এসেছে বলে।

তারপরেই পাক মিডিয়ার কাছে ভাষণ দেন ইমরান খান তিনি বলেন এটা নতুন পাকিস্তান, আর এই পাকিস্তান শান্তি চাই। তবে এর ব্যাপার এই নয় যে আঘাত করলে পাল্টা জবাব দেওয়া হবে না আঘাত করলে দেওয়া হবে জবাব স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাছাড়া এই পাক প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন যে ভারতের অনেক সংবাদ মাধ্যমে শোনা যাচ্ছে পাকিস্তানের ওপর চরম আঘাত আনা হবে, ভারতে কয়েক দিনের মধ্যে হতে চলেছে লোকসভা নির্বাচন।আরে এই লোকসভা নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের লাভ উঠাবার জন্য পাকিস্তানের ওপর আঘাত আনবার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন এই পাক প্রধানমন্ত্রী।

 

তবে যেমন কি আপনারা সকলেই জানেন পুলওয়ামায় জঙ্গী হামলার ঘটনার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানের মদদপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ।আর এর দরুনই স্বাভাবিকভাবে আঙ্গুল উঠতে শুরু করে পাকিস্তানের দিকে।যার দরুন আজ মঙ্গলবার পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেয় ভারতীয় সেনা প্রধান তার পরেই বেরিয়ে এলো এই পাক প্রধানমন্ত্রীর ভাষন।

তবে ইমরান এখানেই চুপ করে থাকেনি তিনি আরো বলেন ভারতের কাছে যদি কোনো অভিযুক্ত প্রমাণ থাকে তাহলে সেটা আমাদের দেখানো হোক? আমরা এই বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবো তাহলে। আপনারা সকলে এটাও জানেন যে পাকিস্তান আজ পর্যন্ত নিজের ভুল কখনোই স্বীকার করেনি তারা সব সময় জঙ্গী পাঠিয়েছে আমাদের দেশে ভাঙতে চেয়েছে দেশের একতাকে। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উদ্যোগে তাদের সমস্ত চেষ্টায় বিফল হয়ে গিয়েছে। যেমন কী পাকিস্তান এই হামলার দায় নিজের ঘাড় থেকে ঝেড়ে ফেলতে চাইছে তাঁর কারণ হল, তাঁরা চায় না ভারত ক্ষেপে গিয়ে তাঁদের চরম ক্ষতি করে ফেলুক। এর সবথেকে বড় কারণ হল, জৈশ এ মহম্মদ এর প্রধান মাসুদ আজহার একজন পাকিস্তানি।

পাকিস্তানে জঙ্গি মাসুদ দিব্যি বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেরাচ্ছে। এমনকি মাসুদের নিরপত্তা দিচ্ছে এই পাক সেনাবাহিনী। আরেকদিকে এর আগে পাঠানকোট হামলার সময় পাকিস্তানের তদন্তকারী দল ভারতে এসে তদন্ত করে গেছে।

ওই তদন্তে কতটা নিরপেক্ষতা দেখিয়েছে পাকিস্তান? সেটা সবার জানা। তবে এবার পাকিস্তানের কোন কথায় কান দেবে না ভারতীয় সরকার তা তারা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন। এবার এই জঙ্গি হামলার বদলা নেওয়া হবে কোন প্রকার আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করা হবে না তা এর আগেই জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সহ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। আর অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানিয়েছেন এবার পাকিস্তানের সাথে কোন প্রকার সমঝোতায় না গিয়ে তাদের এমন সাজা দেওয়া হবে যা ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে।

Related Articles

Back to top button