আরো একবার মাথায় হাত মধ্যবিত্ত পরিবারের, পিঁয়াজের পর এবার আকাশ ছুঁল টমেটো ও আলুর দর

পাইকারি বাজারে দাম কমার পর এবার খুচরো বাজারেও দাম কমলো পেঁয়াজের। এই খবর সাধারণ মানুষের মুখে কিছুক্ষণের জন্য হাসি ফোটালেও পুরোপুরি স্বস্তি দিতে পারল না কারণ এবার প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে, পিয়াজের পর এবার আকাশ ছুঁলো টমেটোর দর। তবে হঠাৎ কেন বাড়লো টমেটোর এর দাম সেই বিষয়ে ব্যবসায়ীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা জানান বেশ কয়েকদিন টমেটো সরবরাহ ব্যাহত হওয়ার কারণেই বৃদ্ধি পেয়েছে টমেটোর দাম।

এমনকী মাদার ডয়ারির সফল দোকানগুলিতে টমেটো কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে 58 টাকা দরে। তবে এখন সাধারন বাজারের দাম পৌঁছে দাঁড়িয়েছে 60 টাকা আবার কোথাও কোথাও 80 টাকা প্রতি কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে টমেটো‌। শুধু তাই নয় টমেটোর গুণমানের জন্য যে দামের হেরফের হচ্ছে সে বিষয়টিকেও মনে করে দিচ্ছে টমেটোর ব্যবসায়ীরা।এক সরকারি তথ্য অনুযায়ী 1 ই অক্টোবর দিল্লিতে টমেটোর দাম ছিল 45 টাকা প্রতি কেজি, কিন্তু বুধবার দিন সেই দাম প্রতি কেজি কমপক্ষে 58 টাকায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

এই বিষয়ে আজাদপুরের একজন পাইকারী বিক্রেতা দাবি করে বলেছেন টমেটোর উৎপাদক রাজ্যগুলিতে ভারী বৃষ্টির কারণে সরবরাহ বন্ধ হয়েছে টমেটো সরবরাহ। যার জেরেই বর্তমানের টমেটোর দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে, তা ছাড়া ভারতের দক্ষিণের বিভিন্ন রাজ্য যেমন কর্ণাটক তেলেঙ্গানা এই জায়গাগুলোতে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে শুধু যে এর প্রভাব দিল্লির মধ্যে পড়েছে তাই নয় দেশের তিনটি বড় শহরেও দাম বাড়ছে তরতরিয়ে,যার মধ্যে রয়েছে কলকাতা, চেন্নাই, মুম্বাই এর নাম।

এই পুজোর বাজারে আরো একটি খবর বেরিয়ে আসছে যেখানে দেখা যাচ্ছে খুচরা বাজারে প্রতি কেজিতে প্রায় দু টাকা দাম বেড়েছে আলুর, যেখানে জ্যোতি আলু আগে 13 থেকে 14 টাকা প্রতি কেজি দরে বিক্রি হচ্ছিল সেখানে তার দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে 15 থেকে 16 টাকা। তবে এই বিষয় নিয়ে ব্যবসায়ীরা বলেছেন পুজোর বাজারে মূল্য বৃদ্ধি স্বাভাবিক। কারণ পুজোর বাজারে হিমঘর বন্ধ থাকা ও শ্রমিকরা ছুটিতে যাওয়ার কারণেই বাজারে আলুর যোগান কমে যায় চার্জের এবারে বাজারে আলুর দাম। তবে আলু ব্যবসায়ীরা তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে লক্ষ্মীপুজো পেরাবার পরেই খোলা হবে যেহেতু হিমঘর সেখানেই মিলে যাবে আলুর যোগান আর তারপরে আবার কমে যাবে আলুর দামও।

শুধু তাই নয় আলু ব্যবসায়ীদের তরফ থেকে আরো জানানো হয়েছে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত বাজারে চাহিদা মেটানোর জন্য পর্যাপ্ত আলু সংরক্ষণ করে রাখা আছে।তাছাড়া বিভিন্ন রাজ্যে আলুর চাহিদা কম হওয়ার কারণেই রাজ্যে আলুর দাম খুব একটা বাড়েনি বলে দাবি করেন এই আলু ব্যবসায়ীরা।যেমন কি এর আগে আমরা জানি পুজোর আগে বেড়েছিল পেঁয়াজের দাম আর যার দাম বাড়ায় কেন্দ্রীয় সরকার পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। আর এরপর যখন পেঁয়াজ বেড়ে যায় দেশীয় বাজারে কমতে শুরু করে পেঁয়াজের দাম। যার দরুন এখন খুচরা বাজারে পেঁয়াজ প্রতি কেজি দরে 50 টাকার আশেপাশে বিক্রি হচ্ছে। আর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করার আগে পেঁয়াজের দাম বাজারে হয়ে দাঁড়িয়েছিল 80 টাকার কাছাকাছি।

তবে কেন্দ্রীয় সরকারের নেওয়া এই পদক্ষেপ যে কতখানি সফলতা পেয়েছে তা হাতেনাতে প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে।

Related Articles

Close