দেশনতুন খবরবিশেষরাজ্য

দিনদিন করোনা সংক্রমণের হার বাড়াচ্ছে উদ্বেগ! তাই আবারও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সাথে বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর..

করোনার বর্তমান পরিস্থিতি ও লকডাউনের মেয়াদকাল নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে আবারো প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করতে চলেছেন আর এই বৈঠকটি হবে আগামী 16 ও 17 জুন। আর এবার যে বৈঠকটি করা হবে সেটি দুটি দফায় সম্পন্ন করা হবে বলে জানানো হয়েছে। আর জানা যাচ্ছে যে আগামী 17 জুন মোদি এবং মমতার বৈঠক হবার সম্ভাবনা রয়েছে এক্ষেত্রে।তবে যেমনটা আমরা জানি কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে লকডাউনের মেয়াদকাল শেষ হচ্ছে আগামী 30 জুন যদিও এই মুহূর্তে গোটা দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণের হার ক্রমশই বেড়ে চলছে, যার ফলে পরিস্থিতি ক্রমশ আশঙ্কাজনক।

আর যদি হিসেবে বলা হয় তাহলে গত 24 ঘণ্টায় গোটা দেশ জুড়ে প্রায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন 10 হাজার 956 জন, অর্থাৎ প্রায় 11 হাজারের ও বেশি কাছাকাছি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এই করোনার জেরে গত 24 ঘণ্টাতে।অন্যদিকে যদি রাজ্যের হিসেবে বলা হয় তাহলে গত 24 ঘন্টাতে রাজ্যে করোনার দ্বারা নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন 440 জন। যার ফলে এখনো পর্যন্ত রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় 10 হাজারের কাছাকাছি। অন্যদিকে যদি চিকিৎসকের মত নেওয়া যায় তাহলে তাদের দাবি আগামী দু মাস গোটা দেশজুড়ে করোনা সংক্রমনের হার বাড়বে।

আর এই করোনা সংক্রমণের হার সেপ্টেম্বরের পর কমতে পারে এমনটাই তাদের দাবি। যার ফলে অনেক রাজ্যই চাইছে এই যে লকডাউনটি চলছে সেটির মেয়াদকাল আবারও বাড়ানো হোক। অন্যদিকে এ বিষয়ে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারে যাচ্ছে যে কেন্দ্রের তরফ থেকে ভাবনা চিন্তা চলছে আগামী আগস্ট মাস থেকে স্কুল- কলেজ- বিশ্ববিদ্যালয় শুরু করা। আর 100% কাজ শুরু করারও ভাবনা চিন্তা চলছে। তবে যেভাবে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের হার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে তার জেরে উদ্বিগ্ন কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার।

তবে আবারো প্রধানমন্ত্রী যে বৈঠকটি করতে চলেছেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে সেখানে এই বিষয়ে একাধিক আলোচনা করা হতে পারে কারণ যেমনটা আমরা জানি 30 শে জুন শেষ হচ্ছে চলতি লকডাউন এর মেয়াদকাল আর তার পরবর্তীকালে করোনা পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হতে পারে রাজ্যের তরফ থেকে সেগুলো জানাতে পারেন প্রধানমন্ত্রী এমনটাই জানতে পারা যাচ্ছে।অন্যদিকে আরো বলে রাখি রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরত চেয়ে কেন্দ্রের কাছে আরো 23 টি ট্রেন চেয়ে রেলকে চিঠি দিয়েছে রাজ্য। আর এক্ষেত্রে যেসব পরিযায়ী শ্রমিকগুলি মূলত মহারাষ্ট্র, গোয়া এবং বিভিন্ন জায়গায় আটকে রয়েছেন তাদেরকে ফেরাতেই এই ট্রেন চাওয়া হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button