দেশে ঘনীভূত হচ্ছে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ,তাই আবারো জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী…

আবারো একবার দেশের মানুষকে করোনা সম্পর্কে সচেতন করতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি।প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে করোনা আগামী দিনে কি বিপদ নিয়ে আসতে পারে তার গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলি সম্পর্কে দেশের নাগরিকদের আরো কয়েকবার সতর্ক করতেই দেশের জনগণের সামনে তিনি তার বক্তব্য রাখবেন। আর তাই আবারো একবার আজ মঙ্গলবার দিন রাত্রি আটটা নাগাদ জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিবেন তিনি।

এই মুহূর্তে দেশজুড়ে ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে লকডাউন এর ঘোষণা করা হয়েছে তবে এমন অনেক দেশবাসীর রয়েছে যারা এই লকডাউনের তোয়াক্কা করছে না যার দরুন এরকম এক উদাসীনতা নিয়ে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী এর আগেও। দেশজুড়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কোমাতেই এই লকডাউন জারি করা হয়েছে।তবে তার গুরুত্ব বুঝে না দেশের অনেকেই এরকম আক্ষেপ প্রকাশ করে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে নিজের উদ্বেগ ব্যক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী।

এই পরিস্থিতিতে তিনি যে মন্তব্যটি করেন সেটি হল করোনাভাইরাস এর বিধি নিষেধ মধ্যেও এখনও অনেকেই এই পরিস্থিতিকে গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করতে চাইছে না। যার ফলে একদিকে ভারতে ক্রমশ বেড়ে চলছে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা। এই মুহূর্তে ভারতের সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী জানতে পারা গেছে এই করোনা ভাইরাস আক্রান্তের পরিসংখ্যান দাঁড়িয়েছে 511জন। তাই এরকম এক পরিস্থিতিতে দেশের মানুষকে আরও সচেতন হওয়ার প্রয়োজন আছে বলে মনে করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। তাই আবারও তিনি মঙ্গলবার দিন সকালে টুইট করে লেখেন আমি করোনাভাইরাস এই বিপদ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ যে দিক গুলি রয়েছে সেগুলি নিয়ে আজকে রাত আটটার সময় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবো।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিন জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী যে ভাষণ দিয়েছিলেন সেখানে তিনি প্রথমেই বলেছিলেন দেশের জনগণকে সতর্ক ও সাবধানে থাকতে। এর পাশাপাশি আশ্বাস দিয়েছিলেন আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য। তবে শুধু বাড়িতে থাকায় গুরুত্বপূর্ণ নয়, এই মুহূর্তে যে যেখানে রয়েছেন সেখানেই থাকুন, অহেতুক সফরে আপনার বা অন্যদের কারো কোন লাভ হবে না আর এই সময় আপনাদের প্রতিটি ছোট পদক্ষেপ ও বড় মাপের প্রভাব ফেলতে পারে এ কথাও জানান তিনি।

ইতিমধ্যে দেশের 13 টি রাজ্য এবং 80 টি জেলায় লকডাউন ঘোষণা করে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার।এর পাশাপাশি বাতিল করা হয়েছে সমস্ত রকম প্যাসেঞ্জার ট্রেন গুলিকেও। দেশজুড়ে লকডাউন এর ঘোষণা করে দেবার পরও এমন অনেক জায়গা রয়েছে সেখানকার মানুষেরা এই লকডাউনের তোয়াক্কা না করে রাস্তায় দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে আর তার জেরে গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করে সকল রাজ্যগুলিকে জানান যারা এই লকডাউন এর বিধিনিষেধ মানছে না তাদের বিরুদ্ধে যেন রাজ্য সরকারের তরফ থেকে আইননত ব্যবস্থা নেওয়া হয়, যাতে তাদেরকে দেখে অন্যরাও সতর্ক হয়।