ব্রেকিং নিউজঃ দেশজুড়ে আবারও বাড়ানো হল লকডাউনের সময়সীমা, আগামী 17 ই মে পর্যন্ত জারি থাকবে লকডাউন

করোনা সংক্রমণ নিয়ে কার্যত নাজেহাল সারা বিশ্ব।
বহু দেশে এখন মৃত্যু-মিছিল অব্যাহত। গোটা বিশ্ব জুড়ে এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে 33 লক্ষেরও বেশি যাদের মধ্যে গোটা বিশ্বে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ঘটেছে 2 লাখ 34 হাজার 123 জন মানুষের। আর ভারতে ইতিমধ্যে এই ভাইরাসের দরুন আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গিয়েছে 1154 জনের। অপরদিকে ভারতে এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে 34901 জন যাদের মধ্যে এখনো পর্যন্ত অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে 24670 টি।

আর গত কয়েকদিন ধরে দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে এমনটাই ইঙ্গিত মিলছিল আবারো এই লকডাউনের সময়সীমা বাড়াতে পারে সরকার, তাছাড়া এখন বাংলাতেও করোনা পরিস্থিতি সংকটজনক অবস্থায় রয়েছে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা জেরে মৃত্যু ঘটেছে 33 জনের এবং রাজ্যে করোনা আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা রয়েছে 572 টি।এই পরিস্থিতির মোকাবিলায় তৈরি করা হয়েছে, কোভিড ম্যানেজমেন্ট ক্যাবিনেট কমিটির।আর ফের বাড়ানো হল এই লকডাউন এর সময়সীমা দ্বিতীয় দফার লকডাউন শেষ হবার কথা ছিল মে মাসের 3 তারিখে তবে আবারো তৃতীয় দফার লকডাউন শুরু হতে চলেছে। আর এই লকডাউন শুরু করা হবে 4 ঠা মে থেকে। অর্থাৎ 17 মে পর্যন্ত বাড়ানো হল লকডাউনের মেয়াদ, এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তবে এক্ষেত্রে গ্রিন এবং অরেঞ্জ জোনে কিছু কিছু ক্ষেত্রে থাকবে ছাড়।আজ শুক্রবার দিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে এই লকডাউন বানানো কথা ঘোষণা করা হয়েছে আরও দুই সপ্তাহের জন্য বাড়ানো হয়েছে এই লকডাউন, আর এই লকডাউনের মেয়াদকাল বাড়ানো নিয়ে আজ শুক্রবার দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের একটি বৈঠক করা হয় আর সেই বৈঠকে আলোচনা করা হয় দেশজুড়ে চলতে থাকা এই লকডাউন কে নিয়ে।আর এরপর কেন্দ্রের তরফ থেকে নতুন সিদ্ধান্ত জারি করে জানানো হল যদিও পরবর্তী দফার লকডাউন বাড়ানো হয়েছে আগামী 17 মে পর্যন্ত তবে এই তৃতীয় দফার লকডাউনে গ্ৰীন ও অরেঞ্জ জোন গুলিতে কিছু কিছু নিয়ম শিথিল করা হবে। তৃতীয় দফার এই লকডাউনে যদিও বন্ধ থাকবে ট্রেন, মেট্রো, সড়ক , পরিবহন ব্যবস্থার পাশাপাশি বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজসহ সব ইনস্টিটিউট। এর পাশাপাশি কোন রকমের জমায়েত করা যাবে না এই তৃতীয় দফার লকডাউনেও।আর গোটা দেশজুড়ে এই একই নিয়ম জারি করা থাকবে যদিও এক্ষেত্রে রেডজোন গুলিতে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হবে প্রশাসনের তরফ থেকে। আর তার পাশাপাশি এই রেড জোন গুলিতে অতিরিক্ত কিছু বাধানিষেধ থাকতে পারে যেমন সাইকেল, অটো বন্ধ রাখা হবে এবং অন্য জেলায় বাস চালানো যাবে না পাশাপাশি বন্ধ রাখা থাকবে সেলুনেরও দোকান।

আরো বিস্তারিত আসছে…