বিশ্বকে তাক লাগাতে ফের প্রস্তুতি শুরু করে দিল ISRO, 2020 তে লঞ্চ করা হবে চন্দ্রযান-3..

যেমনটা আমরা জানি এ বছর সেপ্টেম্বর মাসে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর রহস্য জানার জন্য চন্দ্রযান টু কে চাঁদে পাঠানো হয়েছিল ইসরো তরফ থেকে। তবে চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে মাত্র দু কিলোমিটার দূরে গিয়ে ল্যান্ডারের সাথে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ইসরোর । বহু চেষ্টা করার পরও ল্যান্ডার বিক্রমের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা যায় নি ইসরোর। এ যেন তীরে এসে তরী ডুবে যাওয়ার ঘটনা‌। খুব অল্প জন্যই হাতছাড়া হয়েছে ভারতের চন্দ্রযান টু এর সফলতা।

কয়েকদিন আগেই  এই কথা নিজের মুখেই জানালেন ভারতীয় গবেষণা সংস্থার চেয়ারম্যান কে শিবন। তবে এখানে যে হাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন তারা সে কথাও তিনি এই দিন স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছিলেন। এই দিন তিনি বলেন আবারো নতুন করে চন্দ্র অভিযানের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ইসরো। সাথে জানিয়েছিলেন ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে তার অ্যাকশন প্ল্যান ও।তবে এখন প্রাপ্ত খবর থেকে জানতে পারা যাচ্ছে ইসরো এর জন্য নভেম্বর 2020 এর সময়সীমা কে নির্ধারিত করেছে।

অর্থাৎ ইসরো চন্দ্রযান 3 কে চাঁদের দিকে পাঠাতে চলেছে 2020 সালে। আর এই নতুন চন্দ্রযান মিশনের জন্য ইসরোর প্যানেলের সাথে নতুন করে গঠিত সমিতির সাথে অক্টোবর মাস থেকে এখনো পর্যন্ত তিনটি স্তরে বৈঠক করে ফেলেছে। আর তারাই সাথে জানানো হয়েছে এবার এই নতুন চন্দ্রযান মিশনে শুধুমাত্র ল্যান্ডার আর রোভার কে রাখা হবে। কারণ যেমনটা আমরা জানি চন্দ্রযান টু এর সাথে পাঠানো অর্বিটর এখন ঠিকমতো কাজ করছে তাই নতুন করে আর কোন অরবিটার পাঠানোর দরকার পড়বে না এক্ষেত্রে। এই বিষয়ে মঙ্গলবার দিন সমীক্ষা কমিটির একটি বৈঠকও গঠন করা হয়।

যে বৈঠকে বিভিন্ন সমিতির সুপারিশ নিয়ে চর্চা করা হয় সমিতির সঞ্চালন শক্তি, সেন্সর, ইঞ্জিনারিং আর নেভিগেশন নিয়ে প্রস্তাব দেয়। এই বিষয়ে ইসরোর এক বৈজ্ঞানিক জানান কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। ইতিমধ্যেই ইসরোর তরফ থেকে এখনো পর্যন্ত 10 টি গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে রুপরেখা বানিয়ে নিয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে প্রধান রয়েছে ল্যান্ডিং সাইট, নেভিগেশন আর লোকাল নেভিগেশন।তাই সাথে ইসরো এখন নতুন করে ল্যান্ডার রোভার বানাচ্ছে। ইসরো আবার নতুন করে চন্দ্রযান পাঠাতে চলেছে চাঁদে তার আগামী দিনে মহাকাশে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়ে তৎপর রয়েছে বৈজ্ঞানিক সংস্থা ইসরো।

পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন –

Related Articles

Close