দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

আরও একবার বাড়লো রান্নার গ্যাসের দাম, পুজোর আগেই ফের মাথায় হাত মধ্যবিত্ত পরিবারের..

আরো একবার পুজোর আগেই বড় ধাক্কা খেলো মধ্যবিত্ত পরিবারেরা। পুজোর দুদিন আগে ফের হেঁসেলে লাগলো আগুন। আরো একবার মধ্যবিত্তদের চিন্তা বাড়িয়ে আরও একবার বাড়ল রান্নার গ্যাসের দাম। এবার ভর্তুকিহীন এলপিজি সিলিন্ডার গ্যাসের দাম এক ধাক্কায় বাড়ানো হলো 15 টাকা। যেমন কী আমরা জানি আজকে হচ্ছে মহাতৃতীয়া , আর আজ থেকে লাগু করা হল এই নতুন এলপিজি গ্যাসের দাম। তবে এর আগে বলে রাখি গত মাসে অর্থাৎ পহেলা সেপ্টেম্বর রান্না করা গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছিল।

যেখানে গ্যাসের দাম প্রতি 14.2 কিলো গ্রামের সিলিন্ডার পিছু, দেশের বড় শহরগুলিতে ধার্য করা হয়েছিল 15.5 থেকে 16 টাকা। এর আগে সব মিলিয়ে সিলিন্ডার কিছু 166 টাকা দাম কমানো হয়েছিল। তবে বর্তমানে অর্থনৈতিক অবস্থার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দু’দফায় দাম বাড়লো ভর্তুকিহীন গ্যাসের। প্রথমত বাড়ানো হয়েছিল সেপ্টেম্বরে 1 তারিখে আবার দ্বিতীয়তঃ বাড়ানো হলো এই পহেলা অক্টোবর আজ। চলতি বছরের জুলাই আগস্ট মাসে দিল্লি মুম্বাই ভর্তুকি বিহীন এলপিজি গ্যাসের দাম (14.2 কেজি) কমানো হয়েছিল 166 টাকা করে।

আর সেই সময় কলকাতা ও চেন্নাই ভর্তুকি হীন এলপিজি গ্যাসের দাম প্রতি সিলিন্ডার পিছু 162.5 টাকা করে কমানো হয়েছিল।তবে আবার গতমাসে দাম বাড়ার পর এক ধাক্কায় রান্নার গ্যাসের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেলো। এই ভাবেই গ্যাসের দাম বাড়ার ফলে যে মধ্যবিত্তদের মাথায় হাত পড়েছে এটা বলাই বাহুল্য। এই বিষয় নিয়ে আইওসি-র তরফ থেকে একটি বিবৃতিও জানানো হয়েছে যেখানে তাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বাজারে বিদেশি মুদ্রার দাম উঠা-বাড়া এবং মুদ্রাস্ফীতির কারণেই বর্তমানে এলপিজির দাম কে বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে আরো বলে রাখি পেট্রোপণ্য নিয়ে কেন্দ্রের নতুন নীতির পড়ি এলপিজির দাম সাধারণত প্রতি মাসে ওঠা-নামা করতে থাকে। তাই সাধারণত দেখা যায় প্রতি মাসে সিলিন্ডারের দামের মধ্যে পার্থক্য ভর্তুকিবিহীন এবং ভর্তুকিযুক্ত সিলিন্ডারের দাম কখনও বাড়ে আবার কখনো কমে যায়।তাছাড়া আন্তর্জাতিক বাজারে এলপিজির দাম পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে এই নতুন নাম ঠিক করা হয়। আবার এর দামের পরিবর্তন এর কিছু খানিকটা নির্ভর করে ইন্ডিয়ান অয়েল, হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম এর মত বড় বড় সরবরাহকারী সংস্থাগুলির উপরেও। তবে এই ক্ষেত্রে যারা ভর্তুকি বাইরের মধ্যপ্রদেশে সব কাগজের ওপর দামের অংকটা পড়ে।

যেমন কী আমরা সকলেই জানি কেন্দ্রের তরফ থেকে প্রতি পরিবার পিছু বারোটি করে ভর্তুকি সিলিন্ডার দেওয়া হয়। আর এর বেশি সিলিন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে আর ভর্তুকি মেলে না। তাছাড়া ভর্তুকিযুক্ত সিলিন্ডারের ক্ষেত্রে যে অংকটি থাকে সেটি প্রতি গ্রাহকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে। তবে এই ভর্তুকির অংক নির্ভর করে গেছে দামের হেরফের হওয়ারও পরিবেশে পরিবর্তন হলে বদলে যায় ভর্তুকির পরিমাণ ও। তবে পুজোর আগে এরকমভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ফলে আমজনতার মাথায় হাত পড়েছে।

Related Articles

Back to top button