আবারও বড়োসড়ো ধাক্কা খেলো চীন, এবার চীন থেকে আসা রঙিন টিভির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত সরকার..

চীনকে আরো একবার আর্থিক দিক থেকে শায়েস্তা করতে গতকাল বৃহস্পতিবার দিন ভারত সরকারের তরফ থেকে আরও এক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।যেখানে ভারত সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এবার চীন থেকে রঙিন টিভি আমদানির ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা,আর সরকারের এরকম সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ফলে চীন যে আর্থিক দিক থেকে চাপের মুখে পড়তে চলেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শুধু তাই নয় এই যে পদক্ষেপটি গ্ৰহন করা হয়েছে সেটি ভারতকে আত্মনির্ভর গড়ে তোলার লক্ষ্যে একটি বড় পদক্ষেপ।

এ বিষয়ে বিদেশ বাণিজ্য মহানির্দেশালয় এর তরফে যে তথ্য বেরিয়ে এসেছে সেখানে জানানো হয়েছে এবার যে রঙিন টিভি আমদানির নীতিতে সংশোধন করা হয়েছে, আর এখন থেকে রঙ্গিন টিভি আমদানির নীতি মুক্ত থেকে হাতিয়ে নিষিদ্ধ শ্রেণীতে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।যদি এই বিষয়টিকে আরও খুলে বলা হয় তাহলে বলা যেতে পারে কোনো সামগ্রীকে যদি নিষিদ্ধ শ্রেণীতে রাখা হয় তাহলে তার মানে এটাই দাঁড়ায় যে সেই সামগ্রী আমদানী করা ব্যবসায়ীকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা বিদেশ বাণিজ্য মহানির্দেশালয় থেকে আমদানি লাইসেন্স হাসিল করতে হবে।

যেমনটা আমরা জানি চীন থেকে এর আগে প্রচুর পরিমাণে রঙ্গিন টিভি আমদানি করা হতো ভারতে আর চীন হচ্ছে ভারতের একটি টিভি সাপ্লাইয়ের সবচেয়ে বড় দেশ।আর এক্ষেত্রে চীনের পর যেসব দেশের নাম রয়েছে যেসব দেশগুলো সেগুলো হল ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, হংকং, কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড আর জার্মানির মতো দেশের। প্রসঙ্গত যেমনটা আমরা জানি গালওয়ান উপত্যকাতে ভারত-চীনের সংঘর্ষের জেরে যে 20 জন জওয়ান শহীদ হয়েছিলেন আর তারপর থেকেই এই ঘটনা ঘটে। যেখানে দেশের মানুষ একজোট হয়ে চীনা পণ্য বয়কটের ডাক দেন।

অন্যদিকে ভারত সরকার চীনকে শায়েস্তা করতে চীনের সাথে একাধিক চুক্তি বাতিল করে দেন। তার পাশাপাশি সরকারি কেনাকাটায় চীনের কোম্পানি গুলোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। কেন্দ্র আর রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কোনো প্রোজেক্টেই আর চীনের কোম্পানি গুলোকে নতুন করে নেওয়া হচ্ছে না। এছাড়াও পুরনো প্রোজেক্ট গুলো থেকেই চীনের কোম্পানি গুলোকে ছাঁটাই করা হচ্ছে। এমনকি সরকারের তরফ থেকে এখন যে নতুন প্রজেক্ট গুলোর কথা ঘোষণা করা হচ্ছে সেখানে চীনা কম্পানি গুলিকে অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

এখানেই শেষ নয় এর আগে দেশের সুরক্ষার খাতিরে ভারত সরকারকে চীনের 59 টি অ্যাপকে ব্যান করতে দেখা গিয়েছিল, তাছাড়া গত দুদিন আগে আবারও ভারত সরকারকে চীনের 47 টি App এর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে দেখা যায়। সরকারের নেওয়া এই পদক্ষেপের দরুন বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে চীন যা এর আগেই চীন স্বীকার করে নিয়েছে।

Related Articles

Back to top button