চাপ বাড়ল Jio,Airtel সংস্থার হু হু করে কমছে গ্রাহক সংখ্যা, দিন দিন বাড়ছে BSNL এর গ্ৰাহক সংখ্যা

সম্প্রতি টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া সব টেলিকম কোম্পানীর ফেব্রুয়ারি মাসের পারফরমেন্স রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। ট্রাইয়ের প্রকাশিত রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিএসএনএলের সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানীর মোট গ্রাহক সংখ্যা কমে গেলেও সক্রিয় গ্রাহকের সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে। ফেব্রুয়ারিতে শুধুমাত্র এয়ারটেলের মোট গ্রাহক সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে।

ট্রাইয়ের প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২১ সালের ডিসেম্বরে বিএসএনএলের সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৫৭.৫৫ মিলিয়ন। ২০২২ সালের জানুয়ারিতে, বিএসএনএলের সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৮.৬৪ মিলিয়ন এবং ফেব্রুয়ারিতে এই সংখ্যা আরও বেড়েছে। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিএসএনএলের সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৯.৭৫ মিলিয়ন।

তবে শুধু বিএসএনএল নয়, ট্রাইয়ের প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারিতে সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা বেড়েছে এয়ারটেলের। আবার অন্যদিকে ফেব্রুয়ারি মাসে বিপুল পরিমাণ সক্রিয় গ্রাহক হারিয়েছে ভোডাফোন আইডিয়া। দেশের এই চারটি মোবাইল নেটওয়ার্কের মধ্যে শুধুমাত্র বিএসএনএলের এখনও গোটা দেশে ৪জি নেটওয়ার্ক নেই, তা সত্ত্বেও প্রতি মাসে নতুন সক্রিয় গ্রাহক, বিএসএনএল নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন।

অন্যদিকে দীর্ঘদিন ধরে প্রায় প্রতি মাসেই সক্রিয় গ্রাহক হারাচ্ছে ভোডাফোন আইডিয়া। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে মোট ৩.৬৬ মিলিয়ন গ্রাহক হারিয়েছে জিও। একই সময়ে এয়ারটেলের মোট গ্রাহক সংখ্যা ১.৫৯ মিলিয়ন বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ফেব্রুয়ারিতে মোট ১.৫৩ মিলিয়ন গ্রাহক সংখ্যা কমেছে ভোডাফোন আইডিয়ার। লোকসভায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, ৪জি চালু করার জন্য সারা দেশে ১ লাখেরও বেশি মোবাইল টাওয়ার বসাচ্ছে বিএসএনএল।