নতুন খবরবিশেষরাজনৈতিক

একসময় কাগজ কুড়োতেন তিনি,এখন চণ্ডীগড়ের মেয়র নির্বাচিত হলেন বিজেপি নেতা রাজেশ কালিয়া।

এমন তো অনেক মানুষ রয়েছে যারা সাধারণ কর্মী থেকে শিল্পপতি হয়েছে অথবা ড্রপআউট থেকে দুনিয়ায় বিশ্ব বিখ্যাত কোম্পানির মালিকানা লাভ করেছেন। তবে আজ আমরা যার কথা বলবো তার সাফল্য ও তাদের চেয়েও কোন অংশে কম নয়।আজ আয়রা যার কথা বলতে চলেছি তার নাম রাজেশ কালিয়া, এমন কি চা বিক্রেতা থেকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার তুলনা করা যেতে পারে। এবার চণ্ডীগড়ে মেয়র হিসাবে নির্বাচিত হলেন 46 বছর বয়সে রাজেশ কালিয়া। যিনি এক সময় রাস্তাঘাটে কাগজ কুড়াতেন। মোট 27 টি ভোটের মধ্যে 16 টি ভোট পেয়েছেন এই বিজেপি নেতা রাজেশ কালিয়া একেবারে রাস্তা থেকে উঠে আসা যাকে বলা হয় তার প্রকৃত উদাহরণ এই রাজেশ।


আপনাদের জানিয়ে রাখি এই রাজেশ কালিয়া বাল্মিকী সম্প্রদায়ের মানুষ। বাবা কুন্দন লাল কালিয়া ছিলেন পেশায় ঝাড়ুদার হিসেবে কাজ করেন। কিছুদিন আগেই রাজেশ কালিয়া তার জীবনের ফেলে আসা দিনগুলি স্মরণ করালেন সংবাদ মাধ্যমের কাছে।তিনি জানালেন স্কুল থেকে ফেরার পথে তিনি কাগজ কুড়াতেন ভাইয়ের সঙ্গে গিয়ে আবর্জনা স্তুপ থেকে ও কাগজ সংগ্রহ করতেন তিনি। পরিবারের অভাব দূর করার জন্য বহুদিন ধরে তিনি এ কাজ করে গেছেন। তিনি আরো জানান 1977 সালে তিনি চন্ডীগড় চলে আসেন‌। আর তারপর থেকে জীবনের সাথে শুরু হয় তার লড়াই। আর এখানে আসার পর থেকেই তিনি কাগজ কাগজ কুড়ানোর কাজ শুরু করেন। এক সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, জীবনে এই জায়গায় যেতে পারবেন তা কখনো ভাবতে পারেনি তিনি।তবে তিনি এটা জানিয়েছেন ছোটবেলা থেকেই রাজনীতির প্রতি তার ঝোঁক ছিল অনেকটাই আর সেই জন্যই 1984 সালে আর এস এস ও বিজেপিতে যোগ দেন তিনি।


তিনি জানিয়েছেন বিজেপি একমাত্র দল যেখানে কোন চা বিক্রেতাকে প্রধানমন্ত্রী করতে পারেন আবার একজন কাগজ কুড়ানীকে মেয়র হিসাবে নিয়োগ করতে পারেন তবে তার মধ্যে থাকতে হবে সেই যোগ্যতা। আর আপনাদের বলে রাখি তিনি রাম মন্দির আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন যার জন্য তিনি 15 দিন জেল ও খেটেছেন। বিজেপি তপশিলি মোর্চার সভাপতি ছিলেন বহু দিন ধরেই তবে তিনি 2011 সালে প্রথমবার পৌরসভা নির্বাচনে লড়াই করেন কিন্তু সেখানে তিনি পরাজিত হন। তবে তিনি পরবর্তীকালে আবার 2016 সালের ফের লড়াইয়ে নামেন এবং সেখানে বিপুল ভোটে জয়লাভ ও করেন।

Related Articles

Back to top button