ব্রেকিং নিউজ- আগামী 30 শে এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হল লকডাউনের সময়সীমা

গোটা বিশ্ব জুড়ে এখন একটাই সংকট COVID-19, ভারত সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ গুলিও এখন উঠে পড়ে লেগেছে কীভাবে এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোখা যায় নিজ নিজ দেশে তা নিয়ে।যেহেতু এই ভাইরাসের এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি সেহেতু এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে এখন একটাই পথ রয়েছে গোটা বিশ্বের কাছে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স মেনটেন করা ও নিয়মিত নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা।

এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসে জেরে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে 5000 জনেরও বেশি, এবং এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছে 166 জন মানুষ।তবে মোদি সরকার যে 21 দিনের লকডাউন জারি করেছিলেন তা আগামী 14ই এপ্রিল শেষ হতে চলেছে তবে সেটি শেষ হবার আগেই উড়িষ্যায় ঘোষণা করে দেয়া হলো তাদের রাজ্যে আগামী 30শে এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন বোঝায় থাকবে।আপনাদের জানিয়ে দি, উড়িষ্যায় মঙ্গলবার নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাইরে বেরিয়ে আসেনি তবে রাজ্য সরকার করোনা রোখার জন্য, আরো কয়েকটি এলাকা কড়া নজরদারি চালানোর ঘোষণা করেছে।

প্রসঙ্গত বলে রাখি গোটা উড়িষ্যা জুড়ে এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বাইরে বেরিয়ে এসেছে 42 টি। আর এই বিষয়ে এক সরকারি আধিকারিক জানান ভুবনেশ্বরের পাঁচটি এলাকা সিল করে দেওয়া হয়েছে যেখানে রয়েছে 7992টি দোকান আর ওই এলাকাগুলিকে  সম্প্রসারণ নিয়ন্ত্রণ অঞ্চল বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি ভুবনেশ্বর পৌরসভার তরফ থেকে জানানো হয়েছে তারা এই ভাইরাসের পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে প্রায় চার হাজার মানুষের ওপর নজরদারি রেখেছে আর কিছু সন্দেহজনক ব্যক্তির স্যাম্পল তদন্তের জন্য ইতিমধ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এই মুহূর্তে যে এলাকাগুলিকে সম্প্রসারণ নিয়ন্ত্রণ অঞ্চল বলে ঘোষণা করা হয়েছে সেগুলির নাম যথাক্রমে আজাদ নরম বোমিখান, সূর্য নগর, সত্য নগর আর আইবি কলোনি। গত বুধবার দিন দুপুর বারোটা পর্যন্ত যেখানে প্রায় 2500 জনের স্যাম্পেল পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল তাদের মধ্যে 42 জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।এর পাশাপাশি দুজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন হাসপাতাল থেকে আর এখানে একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং এখন 39 জন চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Related Articles

Close