এবার অখণ্ড ভারতের স্বপ পূরণ করতে মেগা প্ল্যান বানালেন NSA অজিত দোভাল..

আমাদের দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর একটি স্বপ্ন ছিল যেটি হল অখন্ড ভারত গঠন করার। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে তার স্বপ্ন পূরণ হয়নি। কিন্তু এনার এই স্বপ্ন 2020 তে কি সত্যি হতে চলেছে সেই প্রশ্নই দানা বাঁধছে। অখন্ড ভারত গড়ে তোলার জন্য POK নিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন। এই বৈঠকে উনি যে সমস্ত সিদ্ধান্ত গুলি নিয়েছেন তাতে খুব তাড়াতাড়ি pok এর আচ্ছে দিন আসবে বলে মনে করেছেন অনেকেই।

অপরদিকে আবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বহুদিন আগে থেকেই আতঙ্কে রয়েছেন। এছাড়া ও পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল বাজওয়ার ভারতের এই আক্রমনাত্মক রূপটি দেখে কার্যত অবাক হয়ে গেছেন। তবুও যদি এই ঘটনাতে এতদূর পর্যন্ত থাকতো তাহলে ইমরান খান এতটা চিন্তিত হতেন না। কিন্তু এরপর যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটি শোনার পরে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের অবস্থা খারাপ হয়ে গেছে। যেদিন থেকে pok নিয়ে ভারতের প্ল্যান আস্তে আস্তে বুঝতে পারছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সেদিন থেকেই তিনি চিন্তিত।

তিনি স্পষ্টভাবে বুঝতে পেরেছেন যে ভারতে এবার pok নিয়ে একটা বড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে। ভারত সরকার pok কে আজাদ করার জন্য কয়েকটি সুপারহিট প্ল্যান তৈরি করে নিয়েছে। আর এই প্ল্যানটি তৈরি করার পেছনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা কমিটির প্রধান অজিত ডোভাল এবং সিডিএস জেনারেল বিপিন রাওয়াত এদের গুরুত্ব অপরিসীম। পাকিস্তান কে জব্দ করার জন্য এই সুপারহিট প্ল্যানটি বানানো হয়েছে। সাম্প্রতিক কয়েক দিন আগেই অজিত ডোভাল পিওকে নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেছেন।

অজিত ডোভাল কে হিজবুল কমান্ডার রিয়াজ নাইকুর মৃত্যুর পর জম্মু কাশ্মীরে যে অপারেশন হয় তার সমস্ত কিছু তথ্য দেওয়া হয় তাকে। এছাড়াও উপত্যকায় উপস্থিত সমস্ত জঙ্গিদের তালিকা ও দেওয়া হয় অজিত দোভাল কে। এরপর একটি বৈঠকে গোয়েন্দারা দোভালকে জানিয়েছেন, পাক অধিকৃত কাশ্মীর এর পাশে সীমান্ত সংলগ্ন জঙ্গিদের যে লঞ্চ প্যাড গুলো রয়েছে সেগুলো কে সক্রিয় করা হয়েছে। আর তারা ভারতে ঢোকার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে।

এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগেই জানিয়ে দিয়েছেন, নতুন ভারতের জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। যেখানে খবর পাওয়া যাবে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ হয়েছে সেখানেই ভারতীয় সেনা জঙ্গিদের খতম করে দিয়ে আসবে। গত বছর অর্থাৎ 22 এপ্রিল 2019 সালে পাক জঙ্গিদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, ভারতে যদি জঙ্গি হামলা হয় তাহলে তাকে পাতাল থেকে খুঁজে বার করে আনবে নরেন্দ্র মোদি। আর তাদের উপযুক্ত সাজা দেওয়া হবে। তাদের মালিককেও ছাড়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।