বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত মোদী সরকারের, এবার থেকে WhatsApp -এ ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখালেই মিলবে ট্রাফিকের ঝঞ্ঝাট থেকে মুক্তি

অনেক সময় গাড়ি চালানোর সময় আপনার কাছে প্রয়োজনীয় নথিপত্র থাকে না। তাড়াহুড়ো করে বাড়ি থেকে বেরোনোর সময় অথবা ভুলবশত আপনি নথিপত্র নিতে ভুলে যান। ড্রাইভিং লাইসেন্স অথবা প্রয়োজনীয় নথি যদি আপনার কাছে না থাকে তাহলে বড় অংকের চালান দিতে হতে পারে আপনাকে। কিন্তু এবার আপনার জন্য একটি বড়সড় সুখবর নিয়ে আসতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

বিগত বেশ কয়েক বছরে ডিজি লকার অ্যাপের মাধ্যমে স্মার্টফোনে ড্রাইভিং লাইসেন্স, রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট সেভ করার ব্যবস্থা অবলম্বন করেছেন বহু মানুষ। এবার সেই প্রক্রিয়াকে আরও সহজ করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় সরকার। এবার হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ডিজি লকার পরিষেবা ব্যবহার করতে পারবেন আপনি। কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, দেশের ১০ কোটি মানুষ ডিজি লকার ব্যবহার করতে পারেন নিজের ফোনের দ্বারা। নতুন এই ফিচারের বিপুল সংখ্যক মানুষ ডিজি লকার অ্যাপ ডাউনলোড না করে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে নিজের যাবতীয় নথিপত্র ফোনে স্টোর করতে পারবেন।

সোমবার মাই গভারমেন্ট প্লাটফর্মে তরফ থেকে দেশের নাগরিকদের জন্য এই পরিষেবা নিয়ে আসার ঘোষণা করা হয়েছে। জনপ্রিয় মেসেঞ্জিং প্লাটফর্মে এবার মাই গভারমেন্ট হেল্পডেস্ক এর মাধ্যমে ডিজি লকার পরিষেবা ব্যবহার করার সুযোগ সুবিধা পাবেন আপনি।WhatsApp থেকে DigiLocker ব্যবহারের জন্য +91-9013151515 নম্বরে “DigiLocker” টাইপ করে পাঠাতে হবে। এর পরে অথেনটিকেশন সম্পূর্ণ করে প্রয়োজনীয় নথি ফোনে ডাউনলোড করে নেওয়া যাবে। ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট, দুই চাকার বিমা ছাড়াও দশম-দ্বাদশ পাসের সার্টিফিকেট, করোনা টিকার সার্টিফিকেট সহ আরও অনেক নথি খুব সহজে ফোনে ডাউনলোড করা যাবে।

এই পরিষেবা ব্যবহার করার জন্য আধার কার্ডের মাধ্যমে অথেন্টিকেশন করতে হবে আপনাকে। একবার আধার নম্বর দিলে আপনার ফোনে একটি ওটিপি যাবে যেটি ব্যবহার করে আপনাকে অথেন্টিকেশন সম্পন্ন করতে হবে এবং তারপর নথিপত্র স্টোর করতে হবে ফোনে। গত বছরের মার্চ মাসে মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জার অ্যাপে মাই গভর্মেন্ট নিয়ে এসেছিল কেন্দ্র। এই পরিষেবা ব্যবহার করে কয়েক কোটি মানুষ ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট ডাউনলোড করেছেন। এই পরিষেবা কি আরও কার্যকর করার জন্য এবার লাইসেন্স সার্টিফিকেট স্টোর করার মত অনবদ্য পদক্ষেপ নিতে চলেছে কেন্দ্র।