এখন চুরি হয়ে যাওয়া ফোনের লোকেশন ট্র্যাক করতে পারবেন এই সহজ পদ্ধতিতে, বিস্তারিত জানতে

এখনকার দিনে যার হাতে ফোন নেই তার হাতে কিছুই নেই। প্রায় সকলেরই হাতে এখন স্মার্টফোন রয়েছে। এখনকার স্মার্টফোন গুলির মধ্যে রয়েছে কিছু অত্যাধুনিক সেন্সর। হাই স্পিড ইন্টারনেট যুক্ত থাকছে সব সময় আপনার স্মার্টফোনে। এই অত্যাধুনিক সেনসর গুলি যদি খারাপ কাজে না লাগিয়ে সুরক্ষার জন্য ব্যবহার করার চেষ্টা করছেন spyic মত সার্ভিস গুলি। জেইলব্রেকিং অথবা রুট ছাড়াই এই ফিচারস ব্যবহার করতে দিচ্ছে এই সংস্থা।

এর ফলে আপনার স্মার্টফোনে ওয়ারেন্টি যেমন অটুট থাকছে আর একদিকে ফোনের সুরক্ষা নিয়ে চিন্তা করতে হচ্ছে না আপনাদের।একবার রেজিস্ট্রেশন করে নিলেই আপনার স্মার্টফোনকে এক মিটারে অ্যাকিউরেসিতে খুঁজে পাওয়া সম্ভব। এছাড়াও দেখে নেওয়া যাবে ফোনে থাকা সমস্ত কল লিস্ট। লোকেশন ট্র্যাক

দেখুন কে কাকে কিভাবে ট্র্যাক করতে পারবে:-

স্মার্টফোনের মাধ্যমে যদি কাউকে ট্র্যাক করার বিষয়ে সামনে আসে তাহলে অবশ্যই আইনি বাধা রয়েছে। যদি কোন স্মার্টফোনের মধ্যে সিম কার্ড থাকে তাহলে খুব সহজেই ট্র্যাক করা সম্ভব। যদিও সিম কার্ডের মাধ্যমে আপনাদের প্রকৃত লোকেশন জানা সম্ভব নয় তবে জিপিএস ও পাবলিক ওয়ান এর মাধ্যমে অনেক বেশি নিখুঁতভাবে লোকেশন জেনে ফেলতে পারবেন।

মোবাইল ফোনের লোকেশন ট্র্যাক

spyic কি ? জানেন কী?

spyic এর দ্বারা শুধুমাত্র লোকেশন ট্র্যাক বা ফোনের কল লিস্ট চেক করাই নয় কন্ট্রাক্ট ,মেসেজ ,ব্রাউজিং ,হিস্ট্রি ও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ দেখে নেওয়া সম্ভব। তবে অন্যের ফোনে এই অ্যাপ ব্যবহার করে নিজের ফোনে করতে কোন সমস্যায় পড়বেন না আপনিও। যদিও অ্যান্ড্রয়েড গ্রাহকরা রুট অ্যাক্সেস এর সহজেই সার্ভিস ব্যবহার করেন তাহলে অনেক বেশি ফিচারস এর সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন। তবে রুট অ্যাক্সেস এনেবেল করলে আবার আপনার ফোনের ওয়ারেন্টি অবৈধ হয়ে পড়বে।

কীভাবে করবেন spyic এই কাজ দেখুন:—

এন্ড্রয়েড ফোনে (Android phone) spyic ইনস্টল করার জন্য চাই একটি APK ফাইল। আর এই APK ফাইল ইন্সটল করার জন্য আপনার ফোনের আননোন সোর্স এস এনেবেল করতে হবে। তবে IOS গ্রাহকেরা icloud অ্যাকাউন্টে মাধ্যমে লগইন করতে হবে।

মোবাইল ফোনের লোকেশন ট্র্যাক

spyic ব্যবহারের খরচ জানুন:-

বিনামূল্যে এই অ্যাপ ইন্সটল করলেও সার্ভিস ব্যবহারের জন্য সাবস্ক্রিপশন খরচ করতে হয়।spyic এর কোনো বিনামূল্যে সাবস্ক্রিপশন বা ফ্রি ডায়াল নেই যদিও লম্বা ভ্যালিডিটি সাবস্ক্রিপশন খরচ কম এছাড়াও মোট তিনটি ধাপের মাধ্যমে সাবস্ক্রিপশন করা যায়। বেসিক প্লানে মাসিক ৪০ মার্কিন ডলার খরচ হয়। spyic একটি শক্তিশালী টুল যা অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ডিভাইস ট্রাকিং এর কাজে লাগে। রুট বা জেলব্রেক ছাড়াই অনেক ফিচার আপনার স্মার্টফোনে এই সার্ভিস নিয়ে আসবে, যা কোথাও পাবেন না।