ঘর-জুড়ে আরশোলার উপদ্রব! এখন এই ঘরোয়া পদ্ধতিতে দূর করুন ঘরের সমস্ত আরশোলা

ক্ষতিকারক পতঙ্গগুলির মধ্যে অন্যতম হল আরশোলা। মহিলাদের মধ্যে অনেকেই আরশোলা দেখলে ভয়ে আঁতকে ওঠার প্রবণতা আছে। আরশোলা নানা ক্ষতিকারক জীবাণু বহন করে। নোংরা স্থান থেকে উঠে আসার সময় এই আরশোলার গায়ে নানা ক্ষতিকারক জীবাণু লেগে থাকে। সেই আরশোলাটি যখন আপনার ঘরে আসে বা ঘরের খোলা খাবারের উপর দিয়ে হেঁটে যায় তখন সেগুলিতে ওই ক্ষতিকারক জীবাণু ছড়িয়ে দিয়ে যায়।আরশোলা

আরশোলা মুক্ত করার জন্য অনেকে বাড়িতে নানা ধরনের স্প্রে করেন কিন্তু তা সত্বেও আরশোলা উপদ্রব কমে না। তাই ঘরের আরশোলা হলে কীভাবে তা প্রতিকার করবেন সেইগুলি নিয়ে আজকে আমাদের এই আলোচনা। আরশোলার উপদ্রব

১) চিনি ও বেকিং সোডার ব্যবহার-

বেকিং সোডার গন্ধ আরশোলা একদম সহ্য করতে পারে না। ঘরে আরশোলার উপদ্রব হলে ঘরের প্রতিটি কোনায় বেকিং সোডা এবং চিনির মিশ্রণ করে ছড়িয়ে দিন। আরশোলা চিনির প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ওই মিশ্রন খেলে মারা যাবে। সপ্তাহে দুদিন করে এই মিশ্রণ ছড়িয়ে দিন এইভাবে এক মাস চালালে দেখবেন আরশোলার উপদ্রব কমে গেছে।আরশোলা

২) বোরিক পাউডারের ব্যবহার:-

বোরিক পাউডার এক ধরনের অ্যাসিটিক উপাদান। পোকা মাকড়ের উপদ্রব থেকে নিস্তার দেওয়ার জন্য সেই প্রাচীনকাল থেকেই বোরিক পাউডারের ব্যবহারের কথা আমরা শুনে আসছি। বোরিক পাউডার ব্যবহার করে আরশোলার উপদ্রব কমানো যেতে পারে। ১ চামচ বোরিক পাউডার, ২ চামচ ময়দা বা আটা আর ১ চামচ কোকো পাউডার এক সঙ্গে ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে এই মিশ্রণটি বাড়ির সব কোনায় কোনায় ছড়িয়ে দিন। এই মিশ্রণটি আরশোলা যদি খায় তবে আরশোলা টি মারা যাবে। এভাবেই এই মিশ্রণটি সপ্তাহে তিন দিন বাড়িতে ছড়িয়ে রাখুন। এইভাবে যদি দু সপ্তাহ এই পদ্ধতিটি অবলম্বন করেন তাহলে দেখবেন আরশোলার উপদ্রব একদম কমে গেছে।আরশোলা

৩) তেজপাতার ব্যবহার-

তেজপাতার উগ্র গন্ধ আরশোলা সহ্য করতে পারে না তাই সপ্তাহে যদি দু-তিনদিন তেজপাতা গুঁড়ো করে বাড়ির প্রতিটি কোনায় ছড়িয়ে রাখেন তাহলে দেখবেন আরশোলা আর ঘরে নেই।