ঘরে বসে মাত্র ২ মিনিটেই করতে পারবেন করোনা টেস্ট, রিপোর্ট পাবেন মাএ 15 মিনিটে, বিস্তারিত জানতে

এবার বাড়িতে বসেই জানতে পারবেন কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট । রোগী নিজেই  Rapid Antigen Test  (RAT)করতে পারবেন৷ এই বিষয়  ছাড়পত্র দিয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (ICMR)।

দেশজুড়ে প্রতিদিন একাধিক মানুষ  আক্রান্ত হচ্ছেন৷ তাই টেস্ট করালেও ফল জানতে দেরি হচ্ছিল। এই সমস্যা সমাধান করতে Rapid Antigen Test (RAT) কিটে অনুমিত দিয়েছে ICMR। তবে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনেই এই নমুনা পরীক্ষার করার কথা বলা হয়েছে৷

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ-এর তরফে বলা হয়েছে, যাদের উপসর্গ রয়েছে তারাই কেবল এই টেস্ট করতে পারবেন৷ এছাড়া কোভিড আক্রান্তদের সংস্পর্শে যদি সরাসরি এসে থাকেন, তাহলেও টেস্ট করাতে পারেন।

Rapid Antigen Test-এ  রিপোর্ট পজিটিভ এলে নতুন করে পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। তবে উপসর্গ আছে কিন্তু  নেগেটিভ রিপোর্ট এলে তখন  আরটিপিসিআর টেস্ট করতে হবে৷

এই কোভিসেল্ফ টিএম (প্যাথোক্যাচ) টেস্ট কিট তৈরি করেছে  পুণের মাই ল্যাব ডিসকভারি সলিউশন।  অ্যাপের মধ্যেই রয়েছে RAT টেস্টের  গাইডলাইন।  গুগল প্লে স্টোর বা আইওএস থেকে ডাউনলোড করা যাবে  অ্যাপ। একবার পরীক্ষা হয়ে গেলে ছবি তুলে  অ্যাপে পাঠালে সেখানেই দেখাবে কোভিড টেস্টের রিপোর্ট। একই মোবাইল ফোন থেকে পাঠাতে হবে ছবি।

RAT-টেস্টের রেজাল্ট আইসিএমআর-এর সুরক্ষিত সার্ভারে রাখা হবে৷ রোগীর গোপনীয়তা বজায় রাখা হবে। এর ফলে ল্যাবের ভিড় কমানো যাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা৷

রাজ্যের মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়ে দাগি আসামিদের বাঁচাতে ব্যস্ত মুখ্যমন্ত্রী! বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

পরিসংখ্যান বলছে,  বিশ্বে করোনা পরীক্ষায় রেকর্ড গড়েছে আমাদের দেশ।  কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন , ” একদিনে ২০ লক্ষ কোভিড টেস্ট করা হয়েছে। আগামী দিনে এই সংখ্যাটা ২৫ লক্ষে নিয়ে যাবে ভারত।”

ICMR-এর তথ্য অনুযায়ী, গত ১৮ মে পর্যন্ত ভারতে ৩২,০৩,০১,১৭৭ কোভিডের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

এই সময়  করোনা টেস্ট করাটাও যেমন জরুরি, তেমন দরকার ভ্যাকসিনেশন। এখন বাড়িতে বসে টেস্ট করে  মাত্র ২ মিনিটে ঘরে বসেই জানতে পারবেন রিপোর্ট৷ রিপোর্ট পেয়ে যাবেন মাত্র ১৫ মিনিটে। তাই ‘কোভিসেল্ফ'(Coviself)  মানুষের উপকারে আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে৷

কিছু দিনের  মধ্যেই এই ( rat kit) কিট পৌঁছে যাবে সারা ভারতের সাত লাখের বেশি ফারমেসির কাছে।দেশের ৯০%  মানুষের কাছে এই কিট পৌঁছে দেওয়া হবে,  জানিয়েছেন সংস্থার প্রধান সুজিত জৈন।