এখন বাড়িতে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে করতে পারবেন নাগরিকত্বের জন্য আবেদন, বিস্তারিত পদ্ধতি জানতে

এনআরসি (NRC) চালু হওয়ার পর গোটা অসম জুড়ে বেশ জটিল পরিস্থিতির সঞ্চার হয়েছে। এই এনআরসিতে নাম নেই অসমের প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষের। আবার অপরদিকে নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন প্রায় ৩.২৯ কোটি মানুষ, এর মধ্যেই ২.৮৯ কোটি মানুষের নাম উঠেছে নাগরিকত্বের তালিকায়। এবার বিস্তারিতভাবে একটু আলোচনা করা যাক এই নাগরিকত্ব কি? এবং এটি পেতে গেলে কিভাবে আবেদন করতে হবে?

 

কারা কারা ভারতের নাগরিকত্ব পেতে পারেন?

১৯৪৯ সালের ২৯ নভেম্বর মাসের সংবিধানে নতুন করে বলা হয়, যদি কোনও ব্যক্তির বাবা বা মা ভারতে জন্মগ্রহন করেন বা পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে ভারতে বসবাস করে থাকেন, তবে তিনি ভারতের নাগরিক হিসাবে চিহ্নিত হতে পারেন। ১৯৫৫-র নাগরিকত্ব আইনে বলা হয়, জন্মের তারিখের নিরিখেও নাগরিকত্ব দেওয়া যেতে পারে। ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি থেকে ১৯৮৭ সালের ১ জুলাই- পর্যন্ত যারা ভারতে জন্ম গ্রহণ করেছেন তাঁদের জন্মসূত্রে ভারতীয় বলে বিবেচনা করা যেতে পারে । ২০০৪-এর ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে জন্মগ্রহণ করেছেন এমন ব্যক্তির বাবা অথবা মা কেউ একজন ভারতীয় হলেই তাঁকে ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

২০১৯ সালে ১২ ডিসেম্বর নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) পাশ হয়। এই আইন অনুযায়ী ভারতের তিনটি প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান ,আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ অর্থাৎ যে দেশগুলোতে প্রধানত মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষেরা বাস করে। তাই সেই দেশে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ ছাড়া বাকি যে সংখ্যালঘিষ্ঠ ধর্মের মানুষ আছেন অর্থাৎ হিন্দু ,বৌদ্ধ, জৈন, শিখ, পারসি ও খ্রিস্টান ধর্মের মানুষদের নাগরিকত্ব দেবে ভারত সরকার। তবে নাগরিকত্ব পেতে গেলে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে সেগুলো নিয়ে নিচে আলোচনা করলাম-

নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে গেলে প্রথমে যেতে হবে Https://Indiancitizenshiponline.Nic.In/ এই ওয়েবসাইটটিতে। তারপর রেজিস্ট্রেশন অপশনে যান। সেখান থেকে এপ্লাই অপশনে ক্লিক করার পর আপনার যাবতীয় তথ্য সেখানে ইনপুট করুন। আপনার ব্যক্তিগত তথ্য বলতে নিজের নাম, মা বাবার নাম, বৈবাহিক তথ্য, পাসপোর্ট সংক্রান্ত তথ্য ইত্যাদি ওখানে দেবেন। তারপর সেভ অ্যান্ড নেক্সটে ক্লিক করুন।

আপনার কাছে নতুন যে পেজটি খুলে যাবে সেখানে আপনার ঠিকানা সম্পর্কিত তথ্য চাওয়া হবে। সেইগুলি ইনপুট করার পর তার নামে নাগরিকত্ব আবেদন করবেন তার নামে কোনো ফৌজদারি মামলা আছে কিনা সেই সম্পর্কে তথ্য দিতে বলবে। সবশেষে আপনি আপনার ছবি আপলোড করবেন। তাহলেই সম্পূর্ণ হবে আপনার নাগরিকত্বের জন্য আবেদন পদ্ধতি।