এবার বিজেপি মধ্যপ্রদেশে এমন রণকৌশলের সৃষ্টি করলেন যে,১১৪ সিটের কংগ্রেস ফেঁসে রয়ে গেল !

কিছুদিনে আগে ভোটের ফলাফল আসার পর মধ্যপ্রদেশের সরকার বানানোর জন্য জোরতোর দেখা যাচ্ছে। বিজেপি বহুমত সরকার বানানোর জন্য চেষ্টা করেও বিফল হয়েছে। আপনারা সবাই এটা তো জানেনই মধ্যপ্রদেশের যে দলে ১১৬ টি সিট আসবে সেই পার্টিটি বহুমত পাবে কিন্তু বিজেপির পাতে ১০৯ টি সিট আর সেখানে কংগ্রেস ১১৪ টি সিটে বাজি মেরে নিল।যদিও কংগ্রেস যতগুলো সিট পেয়েছে তার থেকে বহুমত সিট পেতে মাত্র কিছুদিন বাকি কিন্তু পূর্ণ বহুমত পেতে এখনও অনেক দূর।মধ্যপ্রদেশে ভোটের জন্য এমন প্যাচ লেগেছে যে নিজের সরকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য নির্দলীয়দের সাহায্য নিতেই হবে।মধ্যপ্রদেশের পাঁচটি সিট নির্দলীয়দের আয়ত্তে রয়েছে।

এই নির্দলীয় দলটিকে যে তার সাতটি সিট দেবে তাদের সরকার বসবে রাজত্বে।দেখা যাক, কোন দলটি এই ৭ জন প্রত্যাশীকে নিজেদের দলে আনতে সচেষ্ট হবে। দেশের সত্তাধারী পার্টি বিজেপি মধ্যপ্রদেশে পুনরায় নিজের সরকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য মিটিং দ্রুত করে দিয়েছেন আর সেখানে কংগ্রেসের প্রদেশ অধ্যক্ষ কমলনাথ , রাজ্যপালের কাছে পত্রের দ্বারা রাজ্যপালের কাছে দেখা করার সুযোগ চেয়েছেন।বলা হচ্ছে যে কমলনাথ এম .পি তে নিজের সরকার প্রতিষ্ঠার করার জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন। বিজেপির অধ্যক্ষ ” রাকেশ সিং” একটিমাত্র টুইট এর মাধ্যমে কংগ্রেসের ঘুম ভাঙিয়ে দিয়েছে।

এই টুইটে তিনি লিখেছেন,নির্দলীয় এবং অন্যান্য প্রত্যাশীরা বিজেপির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।
কংগ্রেস কোনো সন্দেশ পাইনি আর এই ব্যাপারে তিনি রাজ্যপালের সঙ্গে কাল সাক্ষাৎ করতে পারেন।আপনাদের জানিয়ে দি যে, বিজেপির সঙ্গে গভীর রাত থেকে চলা বৈঠকটি সকাল অব্দি চলেছে এবং সকালে ও এমপি সীরম শিবরাজ সিং এর বাড়িতে এ বৈঠকের সূচনা আবার হয়।খবর অনুসারে, এই বৈঠকে বিচার হবে যে কম সিট কেন পাওয়া গেল আর সেখানে এটাও বিচার করা হবে যে মধ্যপ্রদেশে আরেকবার বিজেপির সরকার কেন হবে।