দেশনতুন খবররাজনৈতিক

করা হবে সংবিধানের সংশোধন! শুধু SC,ST নয় এবার জেনারেল বর্গের মানুষেরাও পাবেন সংরক্ষণ।

লোকসভা নির্বাচনের আগে বড় চমক মোদি সরকারের তরফ থেকে। সরকারের নতুন পদক্ষেপে এবার উচ্চ শ্রেণীর মানুষদের সংরক্ষণের আওতায় আনতে চলেছে কেন্দ্র। আজ সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে, উচ্চ শ্রেণীর মানুষেদের জন্য ১০ শতকরা সংরক্ষণ দেওয়া হবে। তিনি বলেছেন এই সংরক্ষণ উচ্চশ্রেণীর আর্থিকভাবে যারা দুর্বল তারাই সে অংশে পড়বে। এই সংরক্ষণ এর আওতায় আসতে গেলে বার্ষিক রোজগার ৮ লক্ষের কম হতে হবে উচ্চ শ্রেণীর মানুষদের।তাছাড়া এটাও বলা হয়েছে যাদের ৫ হেক্টরেরও কম জমি আছে তারা এই সংরক্ষণ এর আওতায় আসবেন।

তবে এখানেই শেষ নয় এই সংরক্ষণের জন্য আরও কিছু শর্তাবলী রাখা হয়েছে যে গুলি হল নিম্নরূপ, বাড়ি ১০০০ স্কয়ার ফিটের বেশি হলে চলবে না পৌরসভা এলাকায় বাড়ি থাকলে তা ১০৯ গজ এলাকার থেকে কম হতে হবে।আর যারা পৌরসভা এলাকার বাইরে থাকেন তাদের বাসস্থানে আয়তন ২০৯ গজ এলাকার বেশি হওয়া যাবে না। এই সিদ্ধান্তকে কার্যকর করার জন্য সংবিধানের সংশোধন করার প্রয়োজন আছে, যার ফলে বদলাতে হবে সংবিধানের ১৫ নম্বর ধারাকে। তবে এখন কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, সে কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা হবে। তবে এখন দেখার বিষয় এটি যে আগামীকাল মঙ্গলবার সংশোধনের শেষ হতে চলছে শীতকালীন অধিবেশন তবে শেষ দিনে কি সংবিধানের সংশোধন করে ওই বিল পেশ করা হবে না এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে বাজেটের অধিবেশনের।

তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের  মতে লোকসভা নির্বাচনের আগে এই পদক্ষেপ একটি মাস্টার স্ট্রোক হতে পারে।এনডিএ ২ ক্ষুব্দ শরিক নেতা লোকজন শক্তি পার্টির রামবিলাস পাসোয়ান ও আর পি আই এর রাম দাস অটোওয়ালে এই সংরক্ষণের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে সবর রয়েছেন। আর সেই ক্ষোভ অনেকটাই কমিয়ে দেওয়া গেল এবার। পাশাপাশি এটা অনুমান করা হচ্ছে এর ফলে উচ্চবর্ণের একটা অংশের মানুষেরা সমর্থন পাবে বিজেপি সরকার। যদিও বিরোধীরা এর বিরুদ্ধে এখন সরব হয়েছেন। ভোটের আগে এই সিদ্ধান্তকে মোদি সরকারের একটা মাস্টারস্টোক বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে এই বিষয়ে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলবেন না। আরো এরকম নতুন নতুন খবর আপডেট পেতে চোখ রাখবেন আমাদের ওই পোর্টালটিতে।

Related Articles

Back to top button