শুধু ভারতেই নয়, ভারত ছাড়াও আরও পাঁচটি দেশে 15 আগস্টে পালিত হয় স্বাধীনতা দিবস

ভারত বর্ষ শুধু জনসংখ্যার দিক থেকে বড় নয় বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম গণতন্ত্র দেশও। আগামীকাল অর্থাৎ ১৫ ই আগস্ট ভারতবর্ষের ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস। ১৯৪৭ সালে ১৫ ই আগস্ট বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশের জন্ম হয়েছিল। দীর্ঘ ২০০ বছরের ব্রিটিশ শাসন থেকে ওইদিনই মুক্তি পেয়েছিল ভারত। প্রতিবারের মতো এবারও দিল্লির ঐতিহাসিক লালকেল্লা প্রাঙ্গণে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হবে।

তবে বর্তমানে করোনা মহামারী চলার কারণে ছোট করে এবারের অনুষ্ঠান পালিত হবে বলে জানা গেছে। তবে ভারতের কাছে যেমন ১৫ ই আগস্ট দিনটি খুবই আবেগের, তেমনই বিশ্বের এমন পাঁচটি দেশ আছে যেখানে এই বিশেষ দিনটি তাদের কাছেও আবেগের। জানলে অবাক হবেন বাহারিন, উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া, গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো এবং লিচেনস্টাইন এই পাঁচ দেশের স্বাধীনতা দিবসও ১৫ ই আগস্ট, জানুন বিস্তারিত।

বাহরিন:-

এটি মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম জনপ্রিয় একটি দেশ। এই দেশটি ও ব্রিটিশদের হাত থেকে ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা লাভ করেছিল। ১৯৭১ সালে ১৫ ই আগস্ট রাষ্ট্রসঙ্ঘের হস্তক্ষেপে ব্রিটিশ উপনিবেশের পতন ঘটে। এই বছরের সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ যদিও সেই দেশটি ১৬ ই ডিসেম্বর জাতীয় দিবস কবে পালন করে। ব্রিটিশ শাসনের হাত থেকে রক্ষা পেয়ে প্রাক্তন সুলতান ঈসা বিন সালমান আল খালিফা সিংহাসনে বসে ছিলেন এইদিনে। ইতিহাস অনুযায়ী এই দ্বীপপুঞ্জে বহু শাসকদের অধীনে ছিল। আরব থেকে পর্তুগিজ, তারপর অবশ্য ১৯ এর দশকে ব্রিটিশদের পরাধীন হয় বাহরিন দেশটি।

গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো :-

ভারত ছাড়াও ১৫ ই আগস্ট স্বাধীন হয়েছিল মধ্য আফ্রিকার এই দেশটি। ১৯৬০ সালে ফরাসি উপনিবেশের পতন হয় এই দিনে।১৯৮০ সালে ফরাসি শাসন শুরু হলে তার সাবেক নাম ছিল ফ্রেঞ্চ কঙ্গো। ১৯০৩ সালে নাম হয় মধ্য কঙ্গো। ১৯৬৩ সাল থেকে ফুলবার্ট ইউলো রাষ্ট্রপতি হিসেবে শাসন করেন দেশটিকে।

উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া :-

প্রতিবছর ১৫ ই আগস্ট জাপান দিবস পালিত হয় উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়াতে। ঐদিন এই দুই দেশে সরকারি ছুটি দেওয়া হয়। কারণ মার্কিন ও সোভিয়েত বাহিনী দশকেরও বেশি সময় ধরে জাপানি দখল করে রেখেছিল। দক্ষিণ ও উত্তর কোরিয়ায় ১৯৪৫ সালের ১৫ ই আগস্ট দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপান মার্কিন ও সোভিয়েত রাশিয়ার কাছে আত্মসমর্পণ করে জাপানি উপনিবেশের পতন হয় কোরিয়ার। তারপর তিন বছর পর সোভিয়েত সমর্থিত উত্তর কোরিয়া ও মার্কিন সমর্থিত দক্ষিণ কোরিয়ার জন্ম হয়।

লিচেনস্টাইন:-

বিশ্বের অন্যতম ক্ষুদ্র দেশ এটি। জার্মানদের হাত থেকে ১৫ ই আগস্ট ১৯৬৬ সালে স্বাধীনতা পেয়েছিল এই দেশটি।১৯৪০ সালের ১৫ আগস্ট দিনটিকে জাতীয় দিবস হিসাবে পালিত হয় এই দিনটিকে। তবে এই দেশটির সম্পর্কে অনেকেরই অজানা ১৬ ই আগস্ট দেশের রাজকুমার পৃন্স ও দ্বিতীয় ফ্রাঙ্ক দেশের জন্মদিন।১৯৩৮ থেকে ১৯৮৯ সালে মৃত্যু হয় লিচেস্টাইন এর রাজকুমারের।