দুধে নয় তবে জল থেকে বের হচ্ছে সোনা! বিজ্ঞানীদের যুগান্তকারী আবিষ্কারের হইচই শুরু গোটা বিশ্বে

গরুর দুধে সোনা পাওয়া যায়’ এই কথাটা আপামর জনসাধারণের কাছে এখন অত্যন্ত পরিচিত। রাজ্য জুড়ে যখন বিধানসভা ভোটের মারমুখি উত্তেজনা ঠিক সেই সময়েই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সকলকে অবাক করে বলে বসেন গরুর দুধে সোনা পাওয়া যায়। দিলীপ ঘোষের এই বিস্ফোরক মন্তব্য ঘিরে চলতে থাকে বহু তর্ক-বিতর্ক। এই মন্তব্যের জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তৈরীও হয়ে যায় নানান রকম হাস্যকর মন্তব্য।

তবে দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যে বেশ কিছু জন সমর্থন করেছেন। তারা বলেছেন বিদেশে একদল বিজ্ঞানী নাকি গরুর দুধে সোনা পেয়েছে। এই বিষয়ে তর্ক বিতর্কের শেষ নেই। গরুর দুধে সোনা পাওয়া যাবে কিনা জানা নেই তবে আপনারা কি জানেন যে জলকে বদলে দেওয়া যায় সোনাতে। অনেকেই এই তথ্য বিশ্বাস করবেন না হয়তো।

তবে এটাই সত্যি। বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে কোন কিছুই অসম্ভব নয়। অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্স এর এক কেমিস্ট এই তথ্য তুলে ধরেছেন সবার সামনে। এক ফোঁটা জলকে মুহুর্তের মধ্যে চমকানো এক ধাতুতে পরিবর্তন করে ফেলেছেন তিনি।

এমনিতেও বহু বার প্রমানিত কোন দ্রব্যের উপর ভীষণভাবে প্রেশার সৃষ্টি করলে সেটি ধাতুতে পরিবর্তন হয়ে যায়। ঠিক তেমনই ১.৫ আ্যটোমোসফেরিক প্রেশার দেওয়া যেতে পারে তবে এটি খুব স্বাভাবিক নয়। গবেষক পাভেল তার দীর্ঘদিনের গবেষণার পর বেশ কিছু তথ্য এই বিষয়ে সামনে নিয়ে এসেছে।

বেশ কয়েকদিন আগে প্রকাশিত এক রিপোর্ট থেকে জানা গেছে যে, একলাইন মেটাল সোডিয়াম পটাশিয়াম এর মত রিয়েকটিভ উপাদান। তবে এই উপাদান অনেক সময় জলের কাছাকাছি আনলে বিস্ফোরণ ঘটে যেতে পারে। তবে নিরাশ হওয়ার কিছু নেই এটি একটি সোনার মতো ধাতুকে তৈরি করবে আগামী দিনে এই বিষয়ে পরীক্ষার যথেষ্ট প্রয়োজন আছে । তবে সোনা না হলেও সোনার মতো দেখতে এই উপাদান দিয়ে অন্য কিছু জিনিস তৈরি করা যেতে পারে। গবেষকেরা জানিয়েছেন সোনার থেকে এই উপাদান অনেকটাই সস্তা হবে।