ধর্মনিরপেক্ষ নয়, হিন্দু রাষ্ট্রের দাবিতে নেপালে পথে নামল মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন।

2014 সালে বিপুল পরিমাণ ভোটে জয়ী হয়ে কংগ্রেসকে সরিয়ে ভারতের ক্ষমতায় আসে বিজেপি সরকার। এই 4 বছরে মোদি সরকার ভারতবর্ষকে সামরিক এবং অর্থনৈতিক দিক থেকে অনেক উন্নত করেছেন। এরপরেও বিরোধীরা মোদী সম্পর্কে নানামন্তব্য করে নানান দুর্নীতির অভিযোগ তুলেন। বিরোধীরা বলেন মোদি সরকার আসার পর থেকে ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতা হারিয়ে গেছে। আবার এদিকে যেমন বিরোধীরা বলছেন ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতা হারিয়ে গেছে অপরদিকে আবার আমাদের এই প্রতিবেশী দেশ নেপাল দাবি করছেন ‘হিন্দুরাষ্ট্র’ করবার। এমনকি আপনি জানলে অবাক হয়ে যাবেন নেপালের মুসলিমরাও বলছেন এখানে হিন্দুরাষ্ট্র করতে হবে।

নেপালের মুসলিমরা  দাবি করেন নেপালে আর কোন ধর্ম নিরপেক্ষতা নয়। নেপাল কে এবার হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষিত করা হোক। 2008 সালে যখন নেপালে রাজতন্ত্রের পতন হয় তখন থেকে আজ পর্যন্ত নেপাল সরকার সংবিধান গঠন করে উঠতে পারেননি। তাই নেপালকে ধর্মনিরপেক্ষ দেশ হিসেবে ঘোষিত করার সংবিধানে প্রস্তাব এসেছে। এর ফলে নেপালে হিন্দু সংগঠনগুলি এর বিরোধিতা করছে এমনকি মুসলিম সংগঠনগুলির ধর্মনিরপেক্ষতা বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন।

মুসলিম নেতাদের সংগঠনগুলি একটি দাবি রয়েছে নেপালে যদি মুসলিমদের নিরাপদে থাকতে হয় তাহলে হিন্দুরাষ্ট্র গঠন করতে হবে নেপালে কোন ধর্ম নিরপেক্ষতা চলবে না। নেপালের মুসলিম নেতা আমজাদ আলী বলেছেন আমি চাই নেপালে হিন্দু রাষ্ট্র গঠন করা হোক।কারণ এর ফলে ইসলাম ধর্ম সুরক্ষিত থাকবে।নেপালে বসবাসকারী মুসলিমরা বলেন,নেপালকে আগে যেমন ছিল তেমনি করে দেওয়া হোক। কারণ হিন্দুরাষ্ট্র চলাকালীন আমরা অনেক সুরক্ষিত,নিরাপদ এবং স্বাধীনভাবে বাঁচতে পারতাম।

Related Articles

Back to top button