আন্দোলনে বিরোধী মন্তব্যের জেরে কঙ্গনার সিনেমা বয়কটের ডাক বিক্ষোভকারীদের, পাঞ্জাবের কোনও হলে দেখানো হবে না ছবি

একজন তারকা তার স্টারডম দিয়ে প্রাভবিত করতে পারেন কোটি কোটি মানুষকে৷ হিরো ওরশিপ বদলে দিতে পারে কোনও গণ আন্দোলন এর মোড়৷ কিন্তু সেই তারকাই যদি গণ আন্দোলনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হন, তাহলে কী হতে পারে ভাবতে পারছেন?

কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষিবিলের প্রতিবাদে সোচ্চার কৃষকরা আন্দোলন শুরু করেছেন। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও কৃষকদের সঙ্গে কথা বলেছেন৷ কিন্তু এখনো কোনো নিশ্চিত সমাধান সূত্র বেরোয়নি৷ এরই মধ্যে কৃষক আন্দোলন কে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করলেন কঙ্গনা রানাওয়াত৷ আন্দোলন বিরোধী মন্তব্যের জেরে এবার কঙ্গনা অভিনীত ছবি বয়কটের ডাক দিলেন পঞ্জাবের কৃষকরা।

 

Brand Kangana Ranaut: Growing in stature or diminishing with controversy?, Marketing & Advertising News, ET BrandEquity

 

শাহিনবাগে সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নিয়েছিলেন বিলকিস বানু। বিক্ষোভের অন্যতম প্রধান মুখ তিনি। যিনি দাদি নামে পরিচিত। সম্প্রতি পঞ্জাবের আন্দোলনে তিনি যোগ দিয়েছেন। তাই নিয়ে কটাক্ষ করেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। কঙ্গনা বলেন, কোনও কিছু না জেনেই প্রৌঢ়া আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন। টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করে কঙ্গনা বলেছেন, “শাহিনবাগের ‘অশিক্ষিত দাদি’ কোনও তথ্য ছাড়াই এই বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন। যারা কিছু জানেন না তাঁদের এইভাবে প্রচারের মুখ করা হয়।” এরপরেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সোচ্চার হন আন্দোলনকারীরা।

 

অমিত শাহ এর পাশে সৌরভ, রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা তুঙ্গে! কী বলছে ‘দাদা’র ঘনিষ্ঠ মহল?

পঞ্জাবের একাধিক চলচ্চিত্র নির্মাতা সংস্থার তরফে কঙ্গনার এই টুইট এর বিষয় বৈঠক করা হয়৷ বৈঠক শেষে তাঁরা জানিয়েছেন, পঞ্জাবের কোনও হলে দেখানো হবে না কঙ্গনা অভিনীত কোনো ছবি। অন্যদিকে কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছিলেন গায়ক দিলজিৎ দোশাঞ্জ। তাঁকেও কটাক্ষ করেন কঙ্গনা রানাউত। কৃষক আন্দোলনের বিরোধিতা করে টুইটে আক্রমণ করেন দিলজিৎকে। তিনি বলেন, “এক খালিস্তানীদের জন্য লড়াই করেছিলাম। কিন্তু শিখরা এখন আমার বিরুদ্ধে কথা বলছে।”

কৃষক আন্দোলনের জেরে উত্তাল সারা দেশ। তাপমাত্রার পারদ যত নামছে, ততই চড়ছে আন্দোলনের উত্তাপ। রাজধানীর বুকে লাগাতার আন্দোলন করছেন হাজার হাজার কৃষক। কৃষকদের এই আন্দোলনকে সমর্থন করছেন দেশ বিদেশে রাষ্ট্রনেতা থেকে অভিনেতা অভিনেত্রীরা।