ব্যবহার করা হবে না কোন চাইনিজ পার্টস, সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি মেড ইন ইন্ডিয়া সেট-টপ বক্স আনছে Tata Sky

কেন্দ্রীয় সরকারের ‘আত্মনির্ভর ভারত’ প্রকল্প বাস্তবায়িত করতে চলেছে টাটা স্কাই। সম্প্রতি টাটা স্কাই সেট- টপ বক্স উৎপাদনে বড় বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এবার থেকে ভারতে তৈরি হবে সেট -টপ বক্স । অন্য কোন দেশের তৈরি প্রডাক্ট ভারতকে ব্যবহার করতে হবে না। এই উদ্দেশ্য সফল করার জন্য সম্প্রতি টেকনিক্যাল আর কানেক্টেড হোম এবং ফ্লেক্সট্রনিকস নামক দুটি সংস্থার সাথে হাত মিলিয়েছে টাটা স্কাই । দেশের উন্নতির স্বার্থে এই তিনটে সংস্থা ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে ফেলেছে সেট -টপ বক্স তৈরির কাজে।

বর্তমানে কোভিড সিচুয়েশনে অনেক কিছুরই পরিবর্তন ঘটে গেছে। দেশের অর্থনৈতিক পরিকাঠামো সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার ফলে দেশের ছোট-বড় সমস্ত বাণিজ্যিক সংস্থা তাদের বাণিজ্য নীতির পরিবর্তন ঘটিয়েছে। নতুন করে ভাবতে বাধ্য হয়েছে দেশের সমস্ত সংস্থাগুলি। পণ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে অত্যাধিক পরিমাণে বৈদেশিক নির্ভরতা যে দেশের অর্থনীতিকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে তা বলাই বাহুল্য । তার ফলে স্বনির্ভরতা হওয়াটা আগে জরুরী ।

কোভিড সিচুয়েশনে বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে আত্মনির্ভরতা কতটা প্রয়োজন তা আরো স্পষ্টভাবে বুঝতে পেরেছে সংস্থাগুলি। এখন যদি দেশের মাটিতেই সেট- টপ বক্স তৈরি হয় তাহলে তার বাজারের চাহিদা আরো বেড়ে যাবে। সহজলভ্য হবে মানুষের কাছে । আর্থিক দিক থেকেও ভারত মজবুত হবে।

আপাতত এই প্রজেক্ট শুরু হবে চেন্নাই এ। প্রাথমিকভাবে উৎপাদনের কাজ এখানেই শুরু হবে । এক্ষেত্রে বিনিয়োগের পরিমাণ বেশি হবে তার কারণ প্রযুক্তি চালু করার জন্য উপযুক্ত পরিকাঠামো এখনো নেই । তাই টাটা স্কাই কে সম্পূর্ণ নতুনভাবে পরিকাঠামো গড়ে তুলতে হচ্ছে।

এর আগে সর্বত্র ক্ষেত্রেই টাটা স্কাই তাদের নিজস্ব তা দেখিয়ে এসেছে ।প্রডাক্ট তৈরীর ক্ষেত্রে কোনো রকম কম্প্রোমাইজ তাদের করতে দেখা যায়নি । এ ক্ষেত্রেও তার অন্যথা হবে না বলে জানানো হয়েছে টাটা স্কাই এর পক্ষ থেকে। যেহেতু এটি একটি নতুন ব্র্যান্ডিং তাই বাজারে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে তাহার গুণগত মানের দিকে যথেষ্ট খেয়াল রাখা হবে বলে জানানো হচ্ছে ।

বর্তমানে পণ্যের গুণগত মান এবং উৎকর্ষের ওপরই বেশি জোর দিচ্ছে টাটা স্কাই গুণগত মান ভালো হলে তবেই গ্রাহকদের কাছে তা সহজলভ্য হবে এবং গ্রহণযোগ্য হবে। সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর হরিৎ নাগপাল দাবি করেছেন এই বিনিয়োগের ফলে দেশে কর্মসংস্থান বাড়বে বহুৎ বেকার যুবক যুবতীর এতে উপকৃত হবে ভারতের বাজারে এটি একটি নয়া উদ্যোগ তাই সংস্থান লাভবান হলে আগামী দিনে বিনিয়োগের অংক বাড়বে।