কোভিড কালে LIC এর নিয়মে বড়োসড়ো পরিবর্তন! এবার থেকে ক্লেইম পেতে হলে করতে হবে এই কাজ

করোনা  মহামারীর এই সংকটময় পরিস্থিতিতে গ্রাহকদের সুবিধার্থে লাইফ ইনসিউরেন্স কর্পোরেশন  অফ ইন্ডিয়া (LIC) তাদের বেশ কিছু নিয়ম কিছুটা শিথিল করেছে । ক্লেইম সেটেলমেন্ট পলিসি শিথিল করতে উদ্যোগ নিয়েছে জীবন বীমা সংস্থা । বর্তমানে করোনা  মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ সমগ্র দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।  মানুষের জীবন বিপন্ন । এই সময়ে গ্রাহকদের সুবিধার জন্য অনেক কোম্পানি নিজেদের কর্মপদ্ধতিতে নানান রকম পরিবর্তন আনছে । এবার সেই পথেই হাঁটলো ভারতীয় জীবন বীমা নিগম।

এর আগে ক্লএইম সেটলমেন্ট করতে মৃতের পুরসভার ডেথ সার্টিফিকেট চাইত সংস্থা।  এখন থেকে পুরসভা শংসাপত্রের পরিবর্তে অন্য প্রমাণপত্র দেখালেও পাওয়া যাবে। গ্রাহক  যাতে স্বাভাবিক ভাবে উপকৃত হবেন।  গ্রাহকরা পুরসভার ডেট সার্টিফিকেট এর পরিবর্তে ডিসচার্জ সামারি কে সেটেলমেন্ট নথিপত্র হিসেবে গণ্য করা হবে বলে জানিয়েছে এলআইসি ।

তবে সেখানে অবশ্যই ডেথ সামারি মানে কখন নির্দিষ্ট ব্যক্তি মারা গেছেন তা লেখা থাকতে হবে । কোন সরকারি হাসপাতাল ছাড়াও সেনা হাসপাতাল কর্পোরেট হসপিটাল ইএসআই এই সমস্ত জায়গার সার্টিফিকেট জমা দেওয়া যেতে পারে এলআইসি অফিসে।  তবে তা অবশ্যই ডেভলপমেন্ট অফিসার দিয়ে সই করিয়ে নিতে হবে।  হাসপাতালে সার্টিফিকেট এর পাশাপাশি শ্মশানঘাটে শেষকৃত্য জমা করতে হবে।

 

অফিসে ব্রাঞ্চের পরিবর্তে কাছের শাখাতেই সারভাইভাল বেনিফিট জন্য আবেদন করতে পারবেন গ্রাহকরা । এর ফলে তাদেরকে আরো কম সময়ে টাকা পাওয়া  যাবে।

Reliance Jio-র এই প্ল্যানে 4 টাকারও কম খরচে রোজ 1GB ডেটা, এক বছরের ভ্যালিডিটি

অনলাইনে কেনা যাবে ইনসিওরেন্স পলিসি।  প্রীমিয়ামের টাকা এবং ইন্টারেস্ট আর ঠিকানা বদলানো যাবে www.licindia.in সাইটে ঢুকে . কোম্পানির কর্মীদের দাবিতে এবার থেকে সপ্তাহে 5 দিন কাজ করবে এলআইসির কর্মীরা . সোমবার থেকে শুক্রবার সকাল 10 টা থেকে বিকেল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত পাওয়া যাবে জীবন বীমার আধিকারিকদের.  শনিবার অফিস বন্ধ থাকবে. এই নতুন নিয়ম কার্যকর করা হয়েছে  ১০ এপ্রিল থেকে।

জেনারেল ইনসিওরেন্স ক্ষতির মুখে রয়েছে।  হেলথ ইনসিওরেন্স কম্পানি গুলি সেখানে দাঁড়িয়ে লাভের মুখ দেখবে।  জীবন বীমা কোম্পানিগুলো এমনটাই আশা করা হচ্ছে তবে করোনায় কমেছে তাদের লাভের পরিমাণ।