রান্নার গ্যাসে আসছে নতুন নিয়ম! এবার একসাথে বুকিং করা যাবে 3 ডিলারের কাছে গ্যাস

এখনকার সমস্ত মানুষ উনানে রান্না ছেড়ে রান্নার জন্য বেছে নিয়েছেন গ্যাস কে। অনেক সময় গ্যাস বুক করতে ভুলে যাওয়া হয়। রান্না করতে করতে যখন দেখা যায় সিলিন্ডারটি শেষ হয়ে গেছে তখন গ্রাহক খুবই সমস্যায় পড়েন। কারণ ডিলারের কাছ থেকে গ্যাস পেতে গ্রাহকের ৪-৫ দিন টাইম লেগেই যায়। এবার এই সমস্যার সমাধান দিতে পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, গ্রাহকরা শুধু একজন ডিলার নয়। ৩ জন ডিলারের কাছে গ্যাস বুক করতে পারবেন। আর গ্যাস বুক করার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই গ্রাহকরা পেয়ে যাবেন সিলিন্ডার।

 

অনেক সময় নানা কাজের ঝামেলার মধ্যে গ্যাস বুক করতে ভুলে যাই। তারপর হঠাৎ করে যেদিন দেখি রান্নার সিলিন্ডারে গ্যাস শেষ হয়ে গেছে সেদিন গ্রাহকের মাথায় বজ্রাঘাত হয়। কী করে সে রান্না শেষ করবেন? কারণ গ্যাস ছাড়া এখনকার মানুষের রান্না করার তেমন আর কিছু বিকল্প ব্যবস্থা নেই। এরফলে খুব সমস্যার মধ্যে পড়তে হয় গ্রাহকদের। এবার আর চিন্তা নেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক এক বড় ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

রান্নার গ্যাস

পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক যে নতুন নিয়ম প্রণয়ন করেছেন সেই নিয়ম অনুযায়ী গ্রাহকরা তিনজনের কাছ থেকে গ্যাস বুক করতে পারবেন। যার কাছে খুশি গ্রাহকরা সিলিন্ডারটি কিনতে পারবেন। এর ফলে গ্রাহকদের একটি মাত্র ডিলারের মুখাপেক্ষী হয়ে বসে থাকতে হবে না। আর তিনজন ডিলারের মধ্যে যেকোনো একটা ডিলারের কাছে থেকে গ্রাহকদের মন মত সিলিন্ডার কিনতে পারবেন। এই নিয়মের ফলে ডিলাররাও চাইবেন যতটা তাড়াতাড়ি সম্ভব গ্রাহকদের সিলিন্ডার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার। এই পরিষেবা চালু হলে আগের মত গ্রাহকদের আর সিলিন্ডার পেতে চার-পাঁচদিন সময়ের জন্য অপেক্ষা করে থাকতে হবে না।

 

২০২১ সালে ‘তৎকাল এলপিজি সেবা পরিষেবার পরিকল্পনা করেছে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন (আইওসিএল)। এই পরিষেবার মাধ্যমে গ্রাহকরা সিলিন্ডার বুক করার দিনই সিলিন্ডার হাতে পেয়ে যাবেন। প্রথমেই প্রতিটি রাজ্যের একটি করে শহরকে চিহ্নিত করা হবে যে শহরের রান্নার গ্যাসের গ্রাহকদের একটি করে সিলিন্ডার রয়েছে। সেই গ্রাহকদের উপরই প্রথম এই সেবা প্রয়োগ করা হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে বুকিং করা গ্যাসের সিলিন্ডার ৩০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে গ্রাহকের বাড়িতে পৌঁছে যাবে।