রেশন কার্ড গ্রাহকদের জন্য বেরিয়ে এল সুখবর, হাতে পাওয়া মাত্রই SMS এর মাধ্যমে সক্রিয় করা যাবে রেশন কার্ড

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের রেশন ব্যবস্থার পরিধি ক্রমশ বাড়ছে। করোনা মহামারীর কারণে বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকার উভয়ই। কিন্তু যাদের নতুন রেশন কার্ড আছে সেই সমস্ত রেশন কার্ড গুলো সচল করতে মাসের-পর- মাস সময় লেগে যাচ্ছে। এর ফলে সরকারের তরফ থেকে উদ্দেশ্যে নতুন পদ্ধতি নিয়ে আসছে সেগুলিতে ধাক্কা খাচ্ছে। তাই এবার নতুন রেশন কার্ড পাওয়ার পরেই সঙ্গে সঙ্গে তা সচল করার পদ্ধতি চালু করার জন্য ভাবছে নবান্ন।

যাতে নতুন রেশন কার্ড পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সাধারণ মানুষ সে রেশন কার্ড থেকে রেশন নিতে পারে। খবর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগের পদ্ধতিতে রেশন কার্ড পাওয়ার পরেই ব্লক অফিসের ফুড ইন্সপেক্টর এর কাছে গিয়ে তা সক্রিয় করাতে হত। এর ফলে রেশন কার্ড সচল হতে দুই থেকে তিন মাস সময় লেগে যেত। খাদ্য দপ্তর এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এবার থেকে রেশন কার্ড হাতে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এসএমএসের মাধ্যমে তা সক্রিয় করতে পারবেন। এসএমএসে একটি ওটিপি দেওয়া হবে সেই ওটিপি দিয়ে রেশন কার্ড সক্রিয় করতে পারবে উপভোক্তারা।

এ বিষয়ে প্রশাসনের এক কর্তা জানিয়েছেন যে, “বর্তমানে এই পদ্ধতিতে নতুন রেশন কার্ড সক্রিয় না হওয়া পর্যন্ত মাসে একবার করে সর্বোচ্চ তিন মাস রেশন তোলার জন্য অনুমতি দেওয়া হতো সংশ্লিষ্ট উপভোক্তা কে। কিন্তু অনেক সময় কার্ড সক্রিয় হতে তিন মাসেরও বেশি সময় লেগে যেত ফলে সেই উপভোক্তা রেশন পাওয়া থেকে বঞ্চিত থাকতো। ফলে অনেক অসুবিধার সৃষ্টি হতো সেই সমস্ত সাধারন মানুষদের। তাই তাদের ও সুবিধার কথা ভেবেই সরকারের তরফ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে এবার নতুন রেশন কার্ড হাতে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সক্রিয় করা হবে।

 

” ইতিমধ্যেই সমস্ত রেশন ব্যবস্থা টিকে অনলাইনে মাধ্যমে করার পরিকল্পনা শুরু হয়েছে। এমনকি কোনো রেশন গ্রাহক যদি রেশন দোকান থেকে খাদ্য সামগ্রী তুলেন তাহলে তার মোবাইলে বার্তা পাঠানো হবে। প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে যে, এ বছরের মার্চ পর্যন্ত অনুমোদিত ডিজিটাল কার্ডের সংখ্যা হয়েছে 9 কোটি 26 লক্ষের মতোন। 5 লক্ষ উপভোক্তা রয়েছে যাদের এখনও পর্যন্ত ডিজিটাল রেশন কার্ড নেই। তারাও ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করেছেন।

তাদের আবেদন যদি সঠিক হয় তাহলে প্রায় 4 লক্ষ নতুন গ্রাহককে ডিজিটাল রেশন কার্ড দেবে রাজ্য সরকার। সম্প্রতি কয়েকদিন আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী মাসে জুন মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। এরপর যদি নতুন রেশন কার্ড সক্রিয় করার পদ্ধতিকে সহজ-সরল না করেন তাহলে সাধারণ মানুষের প্রশ্নের মুখে পড়তে পারেন তিনি।