মোদি সরকারের এই নতুন যোজনার আওতায় এলে আপনিও পেতে পারেন প্রতি মাসে 3000 টাকা পর্যন্ত

কেন্দ্রে মোদী সরকারের তরফ থেকে এক নতুন যোজনা আনা হচ্ছে।যেসব  মানুষেরা এই যোজনার আওতায় আসবেন তাদের প্রত্যেককে মাসিক 3000 টাকা করে দেওয়া হবে মোদী সরকারের তরফ থেকে। তবে এখন প্রশ্ন কারা এবং কীভাবে এই যোজনার আওতায় আসতে পারবেন সেই নিয়ে। যখন থেকে মোদি সরকার কেন্দ্রের দায়ভার সামলেছেন তখন থেকে সকল মানুষের কথা মাথায় রেখে একাধিক যোজনা চালু করেছেন দেশজুড়ে।

আর তারই মধ্যে রয়েছে ভারতীয় কৃষকদের জন্য কিছু চালু করা নতুন স্কিম। যেখানে মোদি সরকার ভারতীয় কৃষকদের কথা মাথায় রেখে এক উদ্যোগ নিয়েছেন। আর মোদি সরকারের তরফ থেকে নেওয়া এই উদ্যোগের নাম দেওয়া হয়েছে “কিষান পেনশন স্কিম”। সকল প্রকার কৃষকদের জন্য এই যোজনা আনা হয়েছে। এই যোজনা অন্তর্গত কৃষকেরা 60 বছর বয়সের পর প্রতি মাসে তিন হাজার টাকা করে পাবেন। এবং ওই কৃষকের মৃত্যুর পর তার স্ত্রীর প্রতি মাসে 1500 টাকা করে পাবেন। সাধারণত যারা সরকারি চাকরি করতো তাদের পেনশনের ব্যবস্থা থাকত কিন্তু এখন বর্তমান সরকার কৃষকদের জন্য পেনশন স্কীম চালু করছে। অনলাইনের মাধ্যমে এই যোজনায় নথিভুক্তকরন শুরুও হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। কারা কারা এই যোজনার জন্য আবেদন করতে পারবেন – এই যোজনাটি শুধুমাত্র কৃষকদের জন্যই চালু করা হয়েছে তাই স্বাভাবিকভাবেই এই যোজনার জন্য কৃষকরাই আবেদন করতে পারবেন। এই যোজনা আবেদন করার জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে তা নিচে আলোচনা করা হলো। আবেদনকারীর বয়স 18 থেকে 40 বছরের মধ্যে হতে হবে।

যে সমস্ত কৃষকের কাছে 2 হেক্টিয়ার বা তার কম জমি আছে তারাই এই যোজনার জন্য আবেদন করতে পারবেন। বয়স অনুসারে কৃষকদের প্রতি মাসে কিছু টাকা জমা দিতে হবে।
“কিষাণ পেনশন স্কিম”– কোনো কৃষক তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে 100 টাকা জমা করবেন । কেন্দ্রীয় সরকারও 100 টাকা জমা করবেন। এক্ষেত্রে 18 বছর বয়সে আবেদন করলে 55 টাকা এবং 40 বছরে আবেদন করলে 200 টাকা করে জমা দিতে হবে। বয়স অনুসারে টাকার পরিমাণ নির্ধারিত হবে।
এর পর এই টাকা 60 বছর বয়সের পর পেনশন হিসেবে সেই কৃষক পেতে থাকবেন প্রতি মাসে।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই যোজনা টি সম্পূর্ণভাবে করার জন্য প্রায় 10 হাজার কোটি টাকা খরচ করা হবে। শুধু তাই নয় এই স্কিমের জন্য কেবলমাত্র তাদেরকেই কৃষক হিসাবে মান্যতা দেওয়া হবে যাদের প্রমাণপত্র হিসাবে রাজস্ব রেকর্ড আছে এবং সাথে সাথে রয়েছে জমির তথ্য। কোথায় কীভাবে আবেদন করবেন : এর জন্য আপনাকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আবেদন জমা নেওয়া শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। CSC অর্থাৎ কমন সার্ভিস সেন্টার দ্বারা আবেদনপত্র জমা নেওয়া হচ্ছে। আবেদন করার জন্য 30 টাকা করে দিতে হচ্ছে। আপনার এলাকার মধ্যে নিকটবর্তী CSC সেন্টার খুঁজে ফেলুন।

Related Articles

Close