বাজারে এলো নতুন বৈদ্যুতিক গাড়ি BYD India MPV e6, একবার ফুল চার্জে চলবে ৫২০ কিলোমিটার পথ

ভারতে লঞ্চ হলো নতুন বৈদ্যুতিক এসইউভি গাড়ি BYD India MPV e6। তবে এই গাড়ি যাত্রী পরিবহনকারী গাড়ি হিসেবে ব্যবহার যোগ্য নয়। এটি মূলত বিটুবি (business-to-business) সেগমেন্টে ব্যবহারের জন্যই বাজারে আনা হয়েছে। BYD Co. Ltd- একটি চীনা অটোমোবাইল সংস্থা, আর এরই ভারতীয় শাখা BYD India-র হাত ধরেই আজ ভারতের বাজারে আনা হলো এই ইলেকট্রিক গাড়িটিকে। তবে ভারতের সব জায়গায় এই গাড়িটি এখনো উপলব্ধ হবে না। দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, হায়দ্রাবাদ এর মত রাজ্যগুলির বিশেষ বিশেষ শহর বিজয়ওয়াড়া, আমেদাবাদ এবং কচিতে শুধুমাত্র পাওয়া যাবে এই গাড়িটি। এখন এই গাড়ির ফিচার, ইঞ্জিন, ওয়ারেন্টি ও দাম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে নিম্নে বর্ণনা করা হলো।

আসুন জেনে নেওয়া যাক BYD India MPV e6-এর ফিচার:-

এই গাড়িটিতে ৭১.৭ কিলোওয়াট আওয়ার ক্ষমতা সম্পন্ন একটি প্লেট ব্যাটারি লাগানো হয়েছে, যা একবার চার্জে ৫২০ কিমি একটানা চলতে পারবে। BYD India MPV e6 গাড়িটির ব্যাটারি এসি এবং ডিসি উভয় ক্ষেত্রেই ফাস্ট চার্জিং-এর সুবিধা দেবে। এছাড়া ব্যাটারিটিকে ৩০ শতাংশ থেকে ৮০ শতাংশ চার্জ করতে সময় লাগবে মাত্র ৩০ মিনিটের কিছু বেশি- এমনটাই দাবি করছেন এই কোম্পানির ফাউন্ডার। একটি ৭ কিলোওয়াট চার্জার এর সাথে এসেছে গাড়িটি।

আসুন জেনে নেওয়া যাক BYD India MPV e6- এর ইঞ্জিনের ফিচারগুলোঃ–

BYD India MPV e6-এর ৭০ কিলোওয়াট আওয়ার ইলেকট্রিক মোটরটি থেকে ১৩০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টার সর্বোচ্চ গতিবেগ পাওয়া যাবে এবং সর্বাধিক ১৮০ এনএম টর্ক উৎপন্ন হবে।

আসুন জেনে নেওয়া যাক BYD India MPV e6- এর ওয়ারেন্টির ব্যাপারে-

এই গাড়িটির ক্ষেত্রে তিন বছর অথবা ১.২৫ লক্ষ কিলোমিটার (যেটি আগে হবে) এর ওয়ারেন্টি দিচ্ছে এই কোম্পানি। আবার তার সাথে ব্যাটারির উপরেও থাকছে ওয়ারেন্টি, সে ক্ষেত্রে আবার ৮ বছর বা ৫ লক্ষ কিলোমিটার এর (যেটি আগে হবে) ওয়ারেন্টি থাকছে। আর মোটরটির ক্ষেত্রে থাকছে ৮ বছর বা ১.৫ লক্ষ কিলোমিটারের ওয়ারেন্টি।

আসুন জেনে নেওয়া যাক BYD India MPV e6- এর দাম:-

ভারতের বাজারে BYD India MPV e6- এর দাম রাখা হয়েছে ২৯.৬ লক্ষ এক্স শোরুম টাকা।

MPV e6-এর প্রসঙ্গে BYD India-র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর কেৎসু ঝাং (Ketsu Zhang) বলেছেন, “আমরা নতুন e6 লঞ্চ করতে পেরে ভীষণ আপ্লুত। সবুজায়নের সাথে ভারতের বৈদ্যুতিক ক্ষেত্রে নবজাগরণ হল আমাদের লক্ষ্য।” অন্যদিকে সংস্থার ভারতীয় শাখার বৈদ্যুতিক যাত্রীবাহী গাড়ির সেলস হেড শ্রীরাঙ্গ যোশি (Shrirang Joshi) মন্তব্য করেছেন, “আমরা ভীষণ খুশি শেষ পর্যন্ত নতুন e6 ভারতের বাজারে আনতে পেরে, যা ইতিমধ্যেই বিশ্ববাজারে জনপ্রিয়। সুরক্ষা, ভরসা, ভেতরে জায়গা এবং দামের বিষয়ে বিবেচনা করে আশা করছি যে ভারতের বি২বি বাজারেও আমরা সাফল্য পাবো।” বাজারে e6 গাড়ি লঞ্চ হওয়ার পরে এর চাহিদা মানুষের মধ্যে ভালো লক্ষ করা গেছে, তার জন্য মানুষ অগ্রিম বুকিংও করছেন।