আসতে চলেছে নতুন বিল!আধার লিঙ্ক না করলে বন্ধ হবে ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের অ্যাকাউন্ট..

দীর্ঘদিনের তর্কবিতর্ক ও জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করতে নতুন বিধি নিয়ম আনতে চলেছে কেন্দ্র সরকার। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী 15 জানুয়ারি থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক নতুন বিধি আনতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই উদ্দেশ্যে একগুচ্ছ পরিকল্পনা ও ইতিমধ্যে নিয়ে ফেলেছে কেন্দ্র সরকার। প্রাপ্ত খবর থেকে জানতে পারা যাচ্ছে নতুন প্রাইভেসি বিলের মাধ্যমে সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়াকে যুক্ত করেছে কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদি সরকার।

আর যে নতুন বিলটি আনা হচ্ছে তার মাধ্যমে ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ এরই সাথে সাথে টিকটক কেউ এই বিলের আওতায় আনা হবে বলে জানতে পারা যাচ্ছে। আর এর ফলেই অনুমান করা হচ্ছে যে সোশ্যাল মিডিয়ায় যে সব লোকেরা ভুয়ো পরিচয় পত্রের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট করে থাকেন এবং ভুয়ো খবর ছড়ান সোশ্যাল মিডিয়ায় তা অনেকটাই হলেও বন্ধ হয়ে যাবে। তবে বলে রাখি এই নিয়ম কবে থেকে চালু করা হবে সেটির সম্বন্ধে এখন ও কোন তথ্য বেরিয়ে আসে নি।

তবে যেমনটা আমরা জানি ভুয়া পরিচয় পত্রের মাধ্যমে অনেক ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়াতে বিদ্বেষমূলক মন্তব্য, অথবা উত্তেজক মূলক মন্তব্যই বলুন না কেন কিংবা ফেক নিউজ, নিজের পরিচয় পত্র গোপন রেখে কাউকে ভুলভাল করে ট্রোলড করা, এছাড়া দেশ বিরোধী কার্যকলাপকে রূখতেই কেন্দ্রের তরফ থেকে এই নতুন বিল আনার বিষয়ে আগে থেকেই নির্দেশ দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। সোশ্যাল মিডিয়াতে আধার সংযোগ সংক্রান্ত একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিমকোর্ট কেন্দ্রকে নীতিনির্ধারণী বিশেষ নির্দেশ দেয়।

তবে এখন যে খবরটি বেরিয়েছে সেখানে শোনা যাচ্ছে যে এবারের এই শীতকালীন অধিবেশনে সোশ্যাল মিডিয়ার ওপর নজরদারি সংক্রান্ত যে বিলটি রয়েছে সেটি পেশ করতে পারে কেন্দ্র সরকার। তবে শুধু বিল পেশ করায় নয় সোশ্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচার রোধে কী কী ব্যবস্থা নিতে চলেছে কেন্দ্র তার চূড়ান্ত ঘোষণা করবে কেন্দ্র।যার দরুন বর্তমানে এখন সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্র কী নীতি আনতে চলেছে তা নিয়ে তুমুল চর্চা শুরু হয়েছে।

Related Articles

Back to top button