দেবশ্রীর ওভার অ্যাকটিংয়ে অতিষ্ঠ দর্শকেরা,অবিলম্বে বন্ধ করা হোক এই ধারাবাহিক, দাবি নেটিজেনদের

১০ বছর পর তিনি অভিনয়ে ফিরেছেন । দীর্ঘদিন অভিনয় ছেড়ে রাজনীতি করার পর আবার তিনি শুটিং ফ্লোরে। জি বাংলায় ‘সর্বজয়া’র হাত ধরে আবার তিনি কামব্যাক করেছেন অভিনয় জগতে। সিরিয়ালটি নিয়ে দর্শকদের মনে উৎসাহের অন্ত নেই প্রথম থেকেই । তার কারণ গল্পের কাহিনী এক মধ্যবয়স্ক বাঙালি গৃহিণীর জীবন নিয়ে । তার উপর নাম ভূমিকায় রয়েছেন ‘কলকাতার রসগোল্লা’ খ্যাত বিখ্যাত অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় । বড় পর্দার পর টেলিভিশনের পর্দায় করলেন দেবশ্রী রায়।

দর্শকদের আগ্রহ যথেষ্ট ছিল এই সিরিয়ালটি নিয়ে । তাই জন্য সিরিয়াল চালু হওয়ার প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই টিআরপি অনুযায়ী প্রথম তিন নম্বরে ছিল সর্বজয়া সিরিয়ালটি। তবে সিরিয়ালটি চালু হবার প্রথম কয়েক সপ্তাহ যেরকম উন্মাদনা ছিল পরবর্তীকালে দর্শকদের সেই উত্তেজনা কম হতে থাকে। বেশ কিছুদিন ধরেই দেবশ্রী রায়ের অভিনয় নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে দর্শক মহলে। যদিও দর্শকদের একাংশ সিরিয়ালটি কে বেশ ভাল নজরে দেখছে।

তাদের মতে গল্পের জমাটি বুনন এবং দেবশ্রী রায় সুদক্ষ অভিনয় সিরিয়াল এগিয়ে নিয়ে যাবে। কিন্তু অনেকেই পছন্দ করছেন না তাঁর অভিনয় । তাদের মতে অত্যন্ত ওভার অ্যাকটিং করছেন এ বিখ্যাত অভিনেত্রী । অভিনয় করতে গিয়ে তিনি অতি নাটকীয়তা আশ্রয় নিচ্ছেন। যা কখনোই তাঁর মতো এক প্রথম সারির অভিনেত্রীর কাছে কাম্য নয়। এরকম চলতে থাকলে সিরিয়ালটির মান নিম্নমুখী হতে পারে।

Advertisements

উল্লেখ্য কিছুদিন আগেই জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সিরিয়ালটি তে একটি বিশেষ পর্ব হয়েছিল। সিরিয়ালটির সেই বিশেষ পর্বে দেবশ্রী রায় কে তাল ছাড়িয়ে রস বার করে, তালের বড়া বানাতে দেখা গিয়েছিল । সেই পর্বে অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় কে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল। তার কারণ দেবশ্রী রায়ের অভিনয় অত্যন্ত চোখে লেগেছিল দর্শকদের । দেবশ্রীর সেই তালের বড়া স্পেশাল এপিসোড এরপর এইবার বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে ঘুড়ি ওড়ানো এপিসোডও সমালোচনার মুখে পড়েছে।

Advertisements

বর্তমানে বিশ্বকর্মা পুজো নিয়ে ঘুড়ি ওড়ানো এপিসোড টিও দর্শকদের একদমই ভালো লাগে নি। দেখানো হচ্ছে পরিবারের মধ্যে ঘুড়ি ওড়ানোর প্রতিযোগিতা চলছে । সেখানে দেবশ্রী রায় তার বড় ভাসুর কে ঘুড়ি ওড়ানোর চ্যালেঞ্জ দিয়েছে এবং এই প্রতিযোগিতায় বস্তির ছেলে মেয়েদের যোগ করা হয়েছে।এই পুরো বিষয়টিতে সর্বজয়ার পাশে আছেন তাঁর বিখ্যাত বিজনেসম্যান স্বামী। ঘোষণা করা হয় প্রতিযোগিতায় যে জিতবে তার হাতে তুলে দেয়া হবে এই জয়ের ট্রফি । কার্যত এপিসোডে দেবশ্রী রায়ের ওভার অ্যাকটিং এর জেরে চটেছেন সব দর্শককূল ।তাদের মতে অভিনেত্রীর অতিরিক্ত অভিনয়ের জেরে সিরিয়ালের মজাটাই নষ্ট হতে চলেছে।

যদিও সিরিয়ালে সর্বজয়া চরিত্রটি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। বড়লোক বাড়ির গৃহিণী হলেও সবার সাথে খুব সহজেই মিশে যেতে পারে সর্বজয়া চরিত্রটি । পরিবারের সবাই তাকে ছোট নজরে দেখলেও এবং মনোমালিন্য হলেও সর্বজয়া সর্বদায় তাঁর স্বামীকে পাশে পান। নিজের মেয়ের সাথেও তাঁর সম্পর্কে খুব একটা ভালো নয়। বস্তির লোকদের সাথে তার মায়ের মেলামেশা এবং সদ্ভাব কখনোই ভালো চোখে দেখে না । যদিও এতকিছু সর্বজয়া মনে রাখে না সে নিজের মতো করে বাঁচে।

উল্লেখ্য সিরিয়ালটির প্রোমো দেখে প্রথম দিকে সবাই ধারণা করেছিল হয়তো শ্রীময়ী সিরিয়ালের নকল সর্বজয়া । কারণ সিরিয়ালের প্রোমোতে একজন মধ্যবয়স্কা গৃহবধু যাকে অবজ্ঞা করা হচ্ছে এবং পাশে দাঁড়াচ্ছে স্বামী এটাই দেখানো হয়েছিল। তবে ‘সর্বজয়া’ স্টার জলসার ‘শ্রীময়ী’র মত সংসারসর্বস্ব মানুষ হলেও ,তার চরিত্র শ্রীময়ী’র থেকে অনেকটাই আলাদা। সর্বজয়া জানে কিভাবে নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে হয়।