নেতাজির খুনে নাকী হাত রয়েছে রাশিয়ার। ঠিক এমনই মন্তব্য করল বিজেপি নেতা..

আজ আমরা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর সম্পর্কে আলোচনাই আসবো।আজ থেকে ৭৪বছর আগে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু বিমান দুর্ঘটনায় মারা জান।কিন্তু শনিবার আগরতলায় এক সমাবেশ বিজেপির নেতা সুব্রক্ষনম স্বামী দাবি রাখেন,’ সুভাষ চন্দ্র বসুর মৃত্যু কোনো দুর্ঘটনা ছিল না,তাকে খুন করা হয়,এই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল পুরাতন সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং সে সময়ের প্রেসিডেন্ট বিশ্বাসঘাতকতা করে ছিলেন।এছাড়াও তিনি দাবি রাখেন এই সবের মূলে ছিলেন, জওহরলাল নেহেরু তিনি সব জানতেন এবং তিনিই ছিলেন ষড়যন্ত্রকারী।কিছুদিন আগেও নেতাজি খুনের দায়ে জোসেফ স্তালিনকে কার্ড করে তুলেছিল বিজেপির সাংসদ।

এছাড়া তিনি আরো বলেন নেতাজি 1945 সালে মারা যাননি তাকে খুনের ষড়যন্ত্র করে জওহরলাল নেহেরু এবং জাপানিরা মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয় ,সেই সময় সুভাষ রাশিয়াতে থাকতে চেয়েছিলেন ,তাকে থাকার অনুমতি দেয়। যদিও জহরলাল নেহেরু সব জানতেন পরে তাকে সাইবেরিয়াতে গোপন ভাবে খুন করা হয় এবং তার নির্দেশ দিয়েছিলেন, যদিও এ ব্যাপারে পরিষ্কার নির্দেশ দিয়েছিলেন কি না তা জানাননি তিনি। তিনি জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করে নিয়েছিল সে সময় ভাড়া শাসন করা ছিল খুবই শক্ত কাজ তাই আজাদহীন ফৌজ গঠন ও যখন সুভাষ চন্দ্র বোস এর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তখন ব্রিটিশ সরকার ভীত হয়ে যায়, তাই নেতাজীর কারণেই ব্রিটিশ সরকারকে দেশ ছাড়তে হয় এবং পরাধীন থেকে মুক্ত হয় ভারত।

Advertisements

Advertisements