স্বাধীনতা সংগ্রামীদের পোস্টার থেকে বাদ গেল নেহেরুর ছবি, কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত নিয়ে চরম বিতর্ক

এবারে এক নয়া অভিযোগ উঠেছে বিজেপির উপরে। খোদ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এবারে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস থেকে বাদ দেবার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির উপরে। গত সাত বছর ধরে কম গালমন্দ করেনি দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে বিজেপি। বিজেপি বাদ দেয়নি নেহেরুর বাড়ির লোককে পর্যন্ত। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বারংবার নেহেরুকে একাধিক প্রশ্নে কাঠগড়ায় তুলেছেন।

৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বর্ষ উদযাপনে বিজেপি যে পোস্টার প্রকাশ করেছে সেখানে রয়েছে সাভারকারের ছবি কিন্তু সেখানে বাদ পড়েছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর ছবি। সম্প্রতি কেন্দ্র স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ পালন করেছে সেই অনুষ্ঠানের পোষ্টার পোস্ট করেছে Indian Council of Historical Research-এর ওয়েবসাইটে। সেখানে ছবি রয়েছে বিপ্লবী ভগত সিং, মহাত্মা গান্ধী, নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু, এমনকি দামোদর সাভারকারেরও ছবি রয়েছে।

তবে সেখানে ছবি ছিল না দেশের প্রথম প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর। সেই নিয়ে বিজেপিকে কড়া সমালোচনার মুখে ফেলেছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের সাথে তীব্র আক্রমণ করেছে বিজেপিকে গৌরব গগৈ, শশী থারুর। সমগ্র কংগ্রেস নেতাদের অভিযোগ, বিজেপি প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে ইতিহাসের পাতা থেকে নেহেরুর অস্তিত্ব মুছে ফেলতে চাইছে। শশী থারুর এই প্রসঙ্গে বলেন, এই রকম ব্যাপার শুধুমাত্র বেদনাদায়ক নয় ইতিহাসের জন্য বিকৃত পর্যন্ত।

গৌরব গগৈ দাবি করেন,  “আর কোনও দেশ কি স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস থেকে দেশের প্রথম নেতাকে সরিয়েছে। ICHR যেভাবে পোস্টার থেকে নেহেরু এবং আবুল কালাম আজাদের ছবি সরিয়েছে সেটা অন্যায় এবং নিন্দনীয়।”এই প্রসঙ্গে নেট দুনিয়ার একাধিক মানুষ বলছেন জওহরলাল নেহরু কোনদিনই নরেন্দ্র মোদীর প্রিয় পাত্র ছিলেন না।

সেই প্রমাণ বহুবার তার বক্তব্যের মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একটুও যে নেহেরুর প্রতি শ্রদ্ধাশীল নন সেটা এবারের ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ অনুষ্ঠানে আরেকবার প্রমাণিত হয়েছে।