দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাতে আসছে আমূল পরিবর্তন!থাকবে না দশম-দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ডের পরীক্ষা চালু করা হবে 5+3+3+4 ব্যবস্থা..

আজ 34 বছর পর বদল এল জাতীয় শিক্ষানীতিতে (national education policy),এই নতুন শিক্ষানীতিতে প্রাথমিক থেকে উচ্চ শিক্ষা শিক্ষা ব্যবস্থায় এক আমূল পরিবর্তন আসতে চলেছে। গতকাল বুধবার দিন সাংবাদিক সম্মেলন কেন্দ্র তরফ থেকে এই পরিবর্তনের কথা ঘোষণা করা হয়েছে এই নতুন নীতিতে শিক্ষা অধিকারের আওতায় আনা হয়েছে তিন বছর থেকে 18 বছরের পড়ুয়াদের। এমনকি এর পাশাপাশি বদলে যাচ্ছে দেশের উচ্চ শিক্ষা ব্যবস্থা প্রাথমিক থেকে উচ্চ শিক্ষা ক্ষেত্রে একাধিক বদল আসতে চলেছে তবে কী কী বদল আসতে চলেছে সেগুলির সম্বন্ধে আজকে আমরা আলোচনা করতে করেছি।

• বদলে ফেলা হলো মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের নাম তার পরিবর্তে নতুন নাম হয়েছে শিক্ষামন্ত্রক।
• প্রথমত এই নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী এবার থেকে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীতে আর নতুন করে বোর্ডের পরীক্ষা নেওয়া হবে না তার পরিবর্তে আনা হয়েছে এক্ষেত্রে নতুন পদ্ধতি যেটি 5+3+3+4 পদ্ধতি। এই পরীক্ষায় এবার থেকে পড়ুয়াদের মুখস্থ বিদ্যার বদলে হাতে কলমে শিক্ষার বিষয়ে বিশেষ জোর দেওয়া হবে।
• এই নতুন শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছে সকলের জন্য শিক্ষার অধিকার যার মধ্যে রয়েছে 3 থেকে 18 বছরের পড়ুয়ারা।

• নতুন যে শিক্ষা ব্যবস্থাটি চালু করা হবে সেটিতে দশম শ্রেণীর পরবাধ্যতামূলক থাকবে না সাইন্স কমার্স আর্টস নিয়ে পড়া এইসব বিভাগের তফাৎ উঠে যাবে।
• অর্থাৎ এবার থেকে পদার্থবিদ্যা নিয়ে পড়লে থাকতে পারে সংগীত আবার পদার্থবিদ্যা ও রসায়ন নিয়ে পড়লেও থাকতে পারে ফ্যাশন ডিজাইনার নিয়ে পড়ার সুযোগ।
• আর এই নতুন শিক্ষাব্যবস্থায় প্রাথমিককেও আনা হয়েছে স্কুলের আওতায় ক্লাস ওয়ান,‌ ক্লাস টুকে রাখা হয়েছে প্রি- প্রাইমারির মধ্যে এটিকে বলা হয়েছে ফাউন্ডেশন কোর্স।

• আর এই নতুন শিক্ষা ব্যবস্থায় নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত আরো একটি স্টেজ করা হয়েছে যেটিকে বলা হয়েছে সেকেন্ডারি স্টেজ। যেখানে এখনকার মতো আর দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ডের পরীক্ষা হবে না।
• এক্ষেত্রে 15 বছরের স্কুলশিক্ষাকে ভাগ করা হয়েছে 5+3+3+4 । 12 বছর থাকছে স্কুলের পঠনপাঠন । আর 3 বছরের প্রাইমারি – অঙ্গনওয়াড়ি শিক্ষা । এখানে প্রাথমিককেও আনা হচ্ছে স্কুলের আওতায় । ক্লাস ওয়ান ও ক্লাস টু – কে রাখা হচ্ছে প্রি প্রাইমারির মধ্যে । সূত্রের খবর , ক্লাস নাইন থেকে টুয়েলভ – আটটি সেমেস্টারে পড়াশােনা চলবে । আর এক্ষেত্রে 4 বছরের মধ্যে 40 টি বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে।

• তাছাড়া এই নয়া নীতিতে বিশেষ ভাবে জোর দেওয়া হয়েছে স্কুলেই ভােকেশনাল শিক্ষায় । এই শিক্ষানীতিতে বলা হয়েছে , ছাত্রদের মধ্যে স্কুল জীবন থেকেই অঙ্ক ও বিজ্ঞান ভাবনা বাড়াতে ভােকেশনাল শিক্ষার উপর জোর দেওয়া হয়েছে । তার পাশাপাশি ছাত্র – ছাত্রীরা ক্লাস 6 থেকেই কোডিং শিখবে।
• এই নতুন শিক্ষানীতির অন্যতম পরিবর্তন হল আঞ্চলিক মাতৃভাষাকে গুরুত্ব দেওয়া এবং শিক্ষার মাধ্যম হিসাবে আঞ্চলিক মাতৃভাষাকেই এক্ষেত্রে সামনের সারিতে রাখা। শুধু তাই নয় এই নতুন শিক্ষানীতিতে বলা হয়েছে , কমপক্ষে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশােনা বা শিক্ষাদানের মাধ্যম হিসাবে আঞ্চলিক বা স্থানীয় মাতৃভাষাকে মাধ্যম করতে হবে । সেটা যদি অষ্টম শ্রেণি বা তার বেশি করা যায় , তাহলে আরও ভাল হয়। সমস্ত স্কুল স্তর ও উচ্চশিক্ষায় সংস্কৃত পড়ার সুযােগ পাবে পড়ুয়ারা।