নাথুরাম গডসের অস্থি আজও ৭০ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও বিসর্জিত করা হয়নি, জানুন এর পেছনে আসল কারণটি..

আপনারা অবশ্যই জেনে থাকবেন যে ,হিন্দু ধর্মে যদি কারও মৃত্যু হযে থাকে তবে তাকে মুখাগ্নি দেওয়া হয় এবং তারপর তার অস্থি গুলিকে গঙ্গায় বিসর্জন করে দেওয়া হয়। মনে করা হয় যে এমন করলে মৃত ব্যক্তির আত্মা শান্তি পায় এবং মোক্ষ এর প্রাপ্তি হয়।কিন্তু নথু রাম গডসে এর মৃত্যুর ৭০ বৎসর পেরিয়ে গেছে ,কিন্তু এখনও পর্যন্ত অস্থি গুলিকে গঙ্গায় প্রবাহিত করা হয়নি। কিন্তু প্রশ্ন এটাই যে তার অস্থিগুলিকে কেনো এখনো গঙ্গায় বিসর্জন করা হয়নি?আপনাদের জানিয়ে দিই, নথুরাম গডসে মহাত্মা গান্ধীকে তিনটি গুলি মেরে হত্যা করেন।

কিন্তু আপনারা এটা জানেন কী যে, গডসে গান্ধীজিকে হত্যা কেনো করেছিলেন? তবে আপনাদের জানিয়ে দিই, যেসময় দেশ ইংরেজ শাসন থেকে মুক্তি পায়, সেইসময় ভারত এবং পাকিস্থান ২ টি ভাগে বিভক্ত হয় এবং সেটি চটজলদি মধ্যে করা হয়েছিল, আর এর ফল আমরা এখনো পর্যন্ত দেখতে পায়। আপনাদের জানিয়ে দিই, বিভাজন এর পর পাকিস্থান ভারতের সরকারের কাছ থেকে ৫৫ কোটি টাকার দাবি করেছিল, তবে ভারত সরকার প্রথমে এটি প্রত্যাহার করেছিল।

কিন্তু গান্ধীজি অনশন এ বসে পড়লেন এ কারণে ভারত সরকার না চাইতেও পাকিস্তানকে ৫৫ কোটি টাকা দিতে বাধ্য হয়। আর গান্ধীজীর এই ভাবে জোর দেওয়ার জন্য ভারত সরকার কে পাকিস্তানকে ৫৫ কোটি টাকা দিতে হয়েছিল এতে অনেক হিন্দু নাগরিক সহিত গডসে ও গান্ধীজীর ওপর অত্যন্ত খুব্দ ছিলেন। এ কারণে ২০ জানুয়ারি ১৯৪৮ এ প্রার্থনা সভা থেকে কমপক্ষে ৭৫ ফিট দূরে বোমা নিক্ষেপ করেন কিন্তু এই চেষ্টা বিফল হয়। আর এই অসফলতার পর নথুরাম পুরো ভার নিজের উপর নিয়ে নেন এবং ৩০ জানুয়ারী গডসে এই কাজটিকে পূরণ করেন।

সেদিন সন্ধ্যা ৫.৪৫ মিনিটে আকাশবাণী গান্ধীজীর মৃত্যুর খবরটি সমস্ত দেশ বাসীকে জানায়। নাথুরাম গডসের অস্থি গুলিকে পুনের শিবাজী নগর এলাকায় একটি স্থাপত্যের মধ্যে সুরক্ষিত ভাবে রাখা রয়েছে।
সেই রুমটিতে তার অস্থি কলস ছাড়াও তার কিছু কাপড় এবং হাতে লেখা একটি নোটস রয়েছে, এবং এগুলিকে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত রাখা হয়েছে। তবে আপনারা অবশ্যই ভাববেন যে,তার এই সব সামগ্রী গুলো কেনো রাখা হয়েছে?

নথুরাম গডসে নিজের শেষ ইচ্ছে রূপে জানিয়েছিলেন যে, তার অস্থিগুলি কে ততদিন পর্যন্ত সুরক্ষিত রাখা হবে যতদিন না সিন্ধু নদী সমগ্র ভারত জুড়ে প্রবাহিত হবে এবং একটি অখন্ড ভারতের নির্মাণ হবে। যখন এমনি হবে তখন কেবল মাত্র আমার অস্থি গুলিকে সিন্ধু নদীতে প্রবাহিত করা হবে এমনটাই ছিল নাথুরাম গডসের শেষ ইচ্ছে।

Related Articles

Close