দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

দেশে করোনা সংক্রমণ রুখতে ফান্ড তৈরির প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর, ভারত ব্যয় করবে 1 কোটি মার্কিন ডলার…

গোটা বিশ্বে হু-হু করে বাড়ছে করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা, আর এই সংখ্যার বিচারে দিকে থেকে দেখতে গেলে এখন প্রায় গোটা বিশ্বজুড়েই আক্রান্তের সংখ্যা দেড় লক্ষের ও বেশি। গতকাল এই বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস এর মোকাবেলা করতে একটি ভিডিও কনফারেন্সে বসেছিলেন সার্কগোষ্ঠী ভুক্ত দেশগুলি। আর এই কনফারেন্সের মাধ্যমে বেরিয়ে এলো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, দেশে এই করোনো ভাইরাসের সংক্রমণকে রুখতে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী একটি ফান্ড তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন এই ফান্ডে এক কোটি মার্কিন ডলার দিতে প্রস্তুত রয়েছে ভারত। তারই সাথে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই কনফারেন্সে দাবি করে বলেন, এবার এই বিশ্বব্যাপী মহামারি ভাইরাসকে রুখতে গোটা বিশ্বকে একসাথে কাজ করতে হবে।এই ভাইরাস রুখতে আমাদের একসাথে কাজ করে সফলতা আনতে হবে, এর পাশাপাশি এই ভাইরাসকে রুখতে ভারত ও যে তৈরি করেছে তাও জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দেওয়া এরকম বার্তাকে স্বাগত জানিয়েছে শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী, নেপালের প্রধানমন্ত্রী, মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি, আফগান সরকার সহ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও। এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই কনফারেন্সের মাধ্যমে মনে করিয়ে দেন, অযথা আতঙ্কিত হবার কোনো প্রয়োজন নেই বর্তমানে দেশগুলি পরীক্ষার মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছে।

অন্যদিকে ভারতীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে বেরিয়ে এলো আরও এক তথ্য যেখানে জানতে পারা যাচ্ছে এবার দেশে এই করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 107 জন যাদের মধ্যে 90 জন রয়েছে ভারতীয়। এরই পাশাপাশি এই সংখ্যার মধ্যে 9 জন সুস্থ রয়েছেন এবং দুজনের মৃত্যু হয়েছে। রাজ্যভিত্তিক যে তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে তার মধ্যমে জানতে পারা গেছে এই ভাইরাসের জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা সবার থেকে বেশি রয়েছে মহারাষ্ট্র সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা 31 জন, তারপর রয়েছে কেরল আক্রান্তের সংখ্যা 22 জন, হারিয়ানা আক্রান্তের সংখ্যা 14 জন (প্রত্যেকেই বিদেশি), উত্তরপ্রদেশ 11 জন, দিল্লিতে 7 জন, কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা 6 জন, তেলেঙ্গানায় 3 জন, রাজস্থানের 2 জন, লাদাখে 3 জন, তামিলনাড়ুতে 1 জন, জম্মু-কাশ্মীরে 2 জন,পাঞ্জাবে 1 জন এবং অন্ধপ্রদেশে 1 জন। অর্থাৎ সবার থেকে বেশি এই ভাইরাসের ছেড়ে আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে মহারাষ্ট্রে।

Related Articles

Back to top button