তৈরি করা হচ্ছে ন্যানো স্যাটেলাইট, মহাকাশে পাঠানো হবে প্রধানমন্ত্রীর ছবি সহ ভগবত গীতা

স্যাটেলাইট চেপে মহাকাশে পাড়ি দেবে ভগবত গীতা। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি সেইসাথে  আত্মনির্ভর ভারত লেখা প্ল্যাকার্ড মহাকাশে পাঠানো হবে এই কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে৷ ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো এক ন্যানো স্যাটেলাইট তৈরি করেছে। এই মাসের শেষে পোলার স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকল রকেটে চাপিয়ে এই কৃত্রিম উপগ্রহ পৃথিবীর কক্ষপথে পাঠানো হবে।

 

ইসরোর সঙ্গে এই উপগ্রহের নকশা বানিয়েছে বেসরকারি সংস্থা স্পেসকিডজ় ইন্ডিয়া। এর নাম সতীশ ধবন স্যাটেলাইট বা এসডি স্যাট। মহাকাশেও আত্মনির্ভরতার লক্ষ্যে বিভিন্ন বেসরকারি মহাকাশ গবেষণা সংস্থার সঙ্গে হাত মেলাচ্ছে ইসরো। বেসরকারি উদ্যোগে এই প্রথম কোনও ন্যানো স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানোর জন্য কাজ চলছে।

এসডি স্যাটে করে মহাকাশে নিজের নাম পাঠাতে পারেন সাধারণ মানুষ। ভগবত গীতা, প্রধানমন্ত্রীর ছবি-সহ ২৫ হাজার নাম পাঠানো হবে মহাকাশে।  হাজার খানেক  প্রবাসীদের নাম থাকবে। স্পেসকিডজ়ের সিইও শ্রীমাথি কেসান বলেছেন, “ভবিষ্যতে সাধারণ মানুষজনেরও জন্য মহাকাশ অভিযানের দরজা খুলে দেওয়া হবে। তারই প্রথম পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বহু মানুষ তাঁদের নামের এন্ট্রি করে ফেলেছেন।”

এই ন্যানো স্যাটেলাইট এর প্রস্তুতি খতিয়ে দেখছেন ইসরো চেয়ারম্যান কে শিবন এবং  সায়েন্টিফিক সেক্রেটারি ডক্টর আর উমামহেশ্বরণ। তাই তাঁদের নামও যাবে মহাকাশে।স্যাটেলাইট মহাকাশে বিকিরণ, চৌম্বকীয় শক্তির পর্যবেক্ষণ করবে। ফেব্রুয়ারিতে এ বছরের প্রথম মহাকাশ অভিযান শুরু করেছে ইসরো। একগুচ্ছ বিদেশি  স্যাটেলাইটের সঙ্গে দেশীয় উপগ্রহ পাঠানো হচ্ছে মহাকাশে।

মাত্র 30 টাকায় বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা ওয়াটার ফিল্টার তৈরি করলেন কর্নাটকের নিরঞ্জন করাগি

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি শ্রীহরিকোটার সতীশ ধবন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র থেকে সকাল ১০টা ২৩ মিনিট নাগাদ পিএসএলভি-সি৫১ রকেটে চাপিয়ে মহাকাশে পাঠানো হবে ২০টি উপগ্রহকে। এর মধ্যে থাকবে ব্রাজিলিয়ান স্যাটেলাইন আমাজোনিয়া-১ যা তৈরি করেছে  ব্রাজিলের বিজ্ঞান মন্ত্রকের অধীনে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ইব স্পেস রিসার্চ (আইএনপিই)।  ইসরোর বিজ্ঞানীদের দাবি,সবুজ বাঁচাতে বড় ভূমিকা নেবে এই স্যাটেলাইট। কোথায় জঙ্গল নষ্ট করার চেষ্টা হচ্ছে, গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে তার খবর দেবে এই উপগ্রহ। দাবানলের খবরও  পৌঁছে দেবে পৃথিবীর গ্রাউন্ড স্টেশনে।