Skip to content

বিশ্বের এই পাঁচটি দামি জিনিস এর মালিক মুকেশ আম্বানি, অনেক কঠোর পরিশ্রম ও নিষ্ঠার সাহায্যে করেছেন হাসিল

এশিয়ার সবথেকে ধনী মানুষের তালিকার মধ্যে অন্যতম হলেন মুকেশ আম্বানি। মুকেশ আম্বানি প্রতিবছর প্রায় কোটি কোটি টাকা রোজগার করেন। নিজের পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার সাথে অর্থ রোজগার করেন এবং রাজকীয় বিলাসবহুল জীবনযাপন করেন তিনি এবং তাঁর পরিবার। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির মালিক মুকেশ আম্বানি নিজের অর্থ দিয়ে এমন অনেক জিনিস কিনেছেন বা এমন অনেক জিনিস ব্যবহার করেন যা সাধারণ মানুষের পক্ষে ব্যবহার করা সম্ভব নয়। আজ আপনাকে মুকেশ আম্বানির এমন পাঁচটি সম্পত্তির কথা বলব যা অন্য কেউ ব্যবহার করতে পারেন না এবং প্রত্যেকটির মূল্য প্রায় ১০০ কোটির বেশি।

ম্যান্ডারিন অরিয়েন্টাল হোটেল: চলতি বছরের শুরুতেই মুকেশ আম্বানি নিউইয়র্ক এর বিখ্যাত ম্যান্ডারিন অরিয়ান্টাল হোটেল কিনে নিয়েছেন। এই হোটেলটির দাম ৭২৯ কোটি টাকা। মুকেশ আম্বানির এই হোটেলে রয়েছে প্রায় ২৪৫ টি কক্ষ এবং অন্যান্য বিলাসবহুল সুযোগ-সুবিধা।

অ্যান্টিলিয়া: অ্যান্টিলিয়া মুকেশ আম্বানির বিলাসবহুল বাড়ির মূল্য ১০০ কোটি টাকা। দক্ষিণ মুম্বাইতে এই বাড়িটি অবস্থিত। এই বাড়িতে প্রায় ৬০০ জনের বেশি কর্মচারী কাজ করেন। এই বিলাসবহুল বাড়িতে রয়েছে সুইমিং পুল থেকে শুরু করে আলাদা কার পার্কিং ব্যবস্থা।

হ্যামলেস টয় কোম্পানি: এই কোম্পানিটি তিনি কিনেছিলেন ২০১৯ সালে। মুকেশ আম্বানির এই কোম্পানি খেলনা তৈরি করে। এটি বিশ্বের সবথেকে বড় খেলনা কম্পানি। এই কোম্পানিটি মুকেশ আম্বানি কিনেছিলেন ৬৫০ কোটি টাকা দামে। সারা বিশ্বে এই কোম্পানির ১৬০ টি ষ্টোর রয়েছে।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স: আইপিএলের সব থেকে বড় দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স হলো মুকেশ আম্বানির দল। এই দলের মালিক মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নিতা আম্বানি। এই দলটি নিতা আম্বানি কিনেছিলেন ৭৮৪ কোটি টাকার বিনিময়ে। এখনো পর্যন্ত এই দলটি পাঁচবার আইপিএল জিতেছে।

স্টক পার্ক: এই পার্কটি অবস্থিত বৃটেনে। এই পার্কটি মুকেশ আম্বানি কিনেছেন ৫৯২ কোটি টাকা দিয়ে। স্টক পার্ক ৩০০ একর জুড়ে বিস্তৃত এবং প্রায় ৯০০ বছরের পুরনো। এই পার্কে অনেক হলিউড ছবির শুটিং করা হয়েছে।