দেশনতুন খবর

ভারত কে অপমান করার যোগ্য জবাব দিলেন মুকেশ আম্বানি। মেয়ের বিয়েতে সারারাত নাচালেন এই আমেরিকান স্টারকে।

কিছুদিন আগে সম্পন্ন হল ভারতবর্ষের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি অর্থাৎ মুখেশ আম্বানির মেয়ে ঈশা আম্বানির বিয়ে। আর এই নিয়ে আলোচনা শোনা গিয়েছে বিশ্বজুড়ে। কারণ ভারতবর্ষের সবথেকে ধনী ব্যাক্তির মেয়ের বিয়ে বলে কথা। ঈশা আম্বানির বিবাহ তে সবচেয়ে অবাক করা ব্যাপার যেটা হয়েছে সেটা হল নিজেদের সেলিব্রেটি ভেবে মাটিতে পা না পড়া কিছু ব্যাক্তি কে ভালোরকম শিক্ষা দেওয়া হয়েছে। যেমন বলিউড অভিনেতা সালমান খান কে একজন ব্যাকগ্রাউন্ড ড্যান্সার হিসাবে নাচতে বাধ্য করেছেন। সেই সাথে নাচিয়েছেন শারুক খানকে। চাটনি পরিবেশন করা করিয়েছেন আমির খানকে দিয়ে। এরা তো গেল শুধুমাত্র দেশের কথা।

এছাড়াও ঈশার বিয়েতে নাচানো হয়েছিল জন কেরি, হিলারি ক্লিন্টনের মত প্রভাবশালী ব্যাক্তিদের। আরও বিশেষ একজনের নাম ছিল সেই নাচার তালিকায়।সেই বিশেষ ব্যাক্তি হলেন বেয়োন্সে। ইনি পেশায় একজন ডান্সার এবং গায়িকা। ইনি মোটা টাকার বিনিময়ে দেশে বিদেশে মানুষজনের মনোরঞ্জন করে থাকেন।আপনাদের জানিয়ে রাখি এই আমেরিকান গায়িকা এক সময় বলেছিলেন যে, ভারত হল গরিব দেশ। আর সেইজন্যই মুকেশ আম্বানি উনার অহংকার ভেঙে উনাকে সারারাত নাচলেন ঈশার বিবাহ অনুষ্ঠানে। উনাকে বুঝিয়ে দিলেন ভারতের ক্ষমতা আছে উনার মত অনেক অনেক ডান্সার কে সারারাত নাচানোর। এর ফলে উনার দীর্ঘদিনের অহংকার মাটিতে মিশে গেল।

বেয়োন্সে ভারত কে অপমানিত করার জন্য বলেছিল যে ভারত হল তৃতীয় দুনিয়ার দেশ। এইরকম দেশে উনি কোনোদিন পা রাখবেন না। আর উনার এমন অপমানকর মন্তব্য মুখেশ আম্বানির কানেও এসেছিল। এমনিতে টাকার বিনিময়ে রাতে কিছু সময়ের জন্য নাচানাচি করে মানুষ কে এন্টারটেইন করেন বেয়োন্সের মত লোকেরা। কিন্তু মুকেশ আম্বানির উনাকে কিছুক্ষনের জন্য নয় বরং তাকে টাকা দিয়ে কিনে নেন এবং সেই ভারতীয়দের সামনে তাকে সারারাত নাচান যাদের কে একসময় গরীব থার্ডক্লাস বলে অপমান করেছিল।

এই আমেরিকান ডান্সার সারারাত নাচানাচি করার পর টাকা নিয়ে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সকল কে। আর এর মধ্যে দিয়ে আম্বানি জি এটা পরিস্কার ভাবে বুঝিয়ে দিলেন যে, ভারত কে যদি কেউ অপমান করে তাহলে তাকেও তৈরি থাকতে হবে সেই অপমানের পাল্টা জবাবের জন্য।
#অগ্নিপুত্র

Related Articles

Back to top button