বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের তালিকা থেকে বাদ পড়ল মুকেশ আম্বানির নাম

বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের তালিকা থেকে বাদ পড়ল মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)৷ সময়টা ভাল যাচ্ছে না রিলায়েন্স কর্তার৷ এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তকমা আর রইল না মুকেশ আম্বানির৷ কিন্তু কী এমন হল? এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি হিসেবে নাম উঠে এসেছে চিনের ঝং শানশান (Zhong Shanshan) এর৷

 

বিশ্বের একাদশতম ধনী ব্যক্তি ৬৬ বছর বয়সী চিনের ঝং শানশান। সাংবাদিকতা, মাশরুম চাষ ও স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রে সফল ব্যবসা করার পর টিকা প্রস্তুতকারী ফার্ম ও জলের বোতল তৈরি করে তিনি এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তির শিরোপা অর্জন করলেন। তবে কেবল মুকেশ আম্বানি নয়, চিনের জ্যাক মা-কেও পিছনে ফেলেছেন ঝং। তাঁর মোট সম্পত্তির মূল্য ৭৭.৮ বিলিয়ন ডলার।

 

চীনের বাইরে এতদিন তিনি তেমনভাবে পরিচিত ছিলেন না। কোনও ধনী ব্যবসায়ী পরিবারের ছত্রছায়া ছিল না তার মাথায়। তিনি স্থানীয়ভাবে ‘লোন উল্ফ’ নামে পরিচিত ছিলেন। টিকা প্রস্তুতকারী ফার্ম ও জলের বোতল এই দু’টি ব্যবসা তাঁকে সাফল্য এনে দেয়। ২০২০ এর এপ্রিলে বেজিং ওয়ানটাই বায়োলজিক্যাল নামে একটি ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান শেয়ার বাজারে নিয়ে আসেন। তার কিছু মাস পর হংকংয়ের বাজারে আনেন জলের বোতল প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান নোংফু স্প্রিং। এই নোংফু স্প্রিং আসার পর শেয়ার বেড়েছে ১৫৫ শতাংশ। বেজিং ওয়ানটাইয়ের শেয়ার বেড়েছে ২ হাজার শতাংশের বেশি।

এবার থেকে অনলাইনে ডাউনলোড করতে পারবেন Ration Card, নতুন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

অন্যদিকে মুকেশ আম্বানি আমাজনের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়েছেন। ২০২০ এর অগাস্টে ২৪,৭১৩ কোটি টাকার বিনিময়ে ‘ফিউচার গ্রুপে’র খুচরো ও পাইকারি ব্যবসা এবং লজিস্টিক্স ও ওয়্যারহাউজিং ব্যবসা কিনে নিয়েছিল রিলায়েন্স। এই চুক্তি মানে নি আমাজন। তাদের বক্তব্য, ২০১৯ সালেই ওই সংস্থার অধীনস্থ ‘ফিউচার কুপনসে’ প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে তারা। এই অবস্থায় ‘ফিউচার গ্রুপ’ তাদের সব সম্পত্তি অন্য কাউকে বিক্রি করে দিতে পারে না। এই বিতর্ক ও প্রতিবাদের জেরে আম্বানির সংস্থার শেয়ার দর কমে গেছে। তাই তাঁর সম্পত্তি আর্থিক মূল্য হ্রাস পেয়েছে৷মুকেশ আম্বানি