সম্পত্তির ভাগাভাগি করতে চলেছেন মুকেশ আম্বানি, জানুন এর পেছনের আসল বড় কারণ

বিশ্বের সবথেকে ধনী মানুষের তালিকায় যদি নাম উচ্চারণ করতে হয় তাহলে অবশ্যই করতে হবে মুকেশ আম্বানির নাম। ধীরুভাই আম্বানির মৃত্যুর পর সম্পত্তির বন্টন নিয়ে মতবিরোধ দেখা গিয়েছিল মুকেশ আম্বানি এবং অনিল আম্বানির মধ্যে। দীর্ঘদিন এই বিবাদ চলে তাঁদের পরিবারের মধ্যে।অবশেষে ধীরুভাই আম্বানির স্ত্রী অর্থাৎ আনন্দিবেন, দুই ভাইকে সমস্ত সম্পত্তি সমান ভাগে ভাগ করে দেন। এই ক্ষত এখনো তাজা মুকেশ আম্বানির স্মৃতিতে।

সম্প্রতি মুকেশ আম্বানি তাঁর নিজস্ব সম্পত্তির বন্টন নিয়ে একটি বড়সড় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মুকেশ আম্বানির সাম্রাজ্য প্রায় ২০৮ বিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি। এই বিপুল পরিমান সম্পত্তির বন্টন নিয়ে যাতে তিন সন্তানের মধ্যে কোনরকম বিরোধ না হয়, তার জন্য এখন থেকেই একটি সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন মুকেশ আম্বানি।

সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ওয়ালমার্ট ইনকর্পোরেটেড ওয়ালটন পরিবারের ফর্মুলা বেশ পছন্দ করেছেন মুকেশ আম্বানি। এবার জেনে নেওয়া যাক ওয়ালমার্ট পরিবারের কথা। স্যাম ওয়াল্টার তাঁর চার সন্তানের মধ্যে সম্পত্তি ভাগাভাগি করে দিয়েছেন ২০-২০ শতাংশ রূপে। এর ফলে করের বোঝা অনেকটা কমে যায় এবং ব্যবসার উপর সংসারের সমস্ত খরচ নির্বাহিত হয়।

মুকেশ আম্বানি সম্পূর্ণ সম্পত্তি একটি ট্রাস্টে হস্তান্তর করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই ট্রাস্টের মালিকানা থাকবে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রির ওপরে। এই ট্রাস্টে অংশীদার থাকবেন মুকেশ আম্বানি, নিতা আম্বানি, আকাশ আম্বানি, অনন্ত আম্বানি এবং ইসা আম্বানি। এই ট্রাস্টের উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ করা হবে আম্বানি কোম্পানির বেশ কিছু বিশেষ লোককে।ক্রেডিট সুইচ গ্রুপ এজির রিপোর্ট অনুযায়ী, এশিয়ার ১.৩ ট্রিলিয়ন ডলার সম্পত্তি এইভাবে প্রথম প্রজন্ম থেকে পরবর্তী প্রজন্মে স্থানান্তরিত করা হবে।