ভাইরাল প্রোটিন ভাঙতে ও করোনা জীবাণু ধ্বংস সাহায্য করবে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি-ইজরাইল

করোনাভাইরাস সংক্রান্ত একটি বড় তথ্য দিয়েছে ইজরায়েল। ইজরায়েলের দাবি করোনাভাইরাসকে দমন করে দিতে পারে এই ‘মনোক্লোনাল’ অ্যান্টিবডি। কোভিড পজিটিভ রোগীদের শরীরের কোষ নিয়ে এমন ধরনের অ্যান্টিবডি তৈরি করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নাফতালি বেন্নেট। তবে এই অ্যান্টিবডি মানব শরীরের দেহে ঢুকিয়ে ট্রাইল তৈরি করা হয়েছে কীনা সে সম্পর্কে কিছু জানাননি তিনি। তবে ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের দাবি, এই অ্যান্টিবডি করোনা প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করবে।

এই অ্যান্টিবডি বানিয়েছে ইজরায়েল ইনস্টিটিউট ফর বায়োলজিক্যাল রিসার্চ(IIBR) । গবেষকরা জানিয়েছেন, এই অ্যান্টিবডি হলো মনোক্লোনার অর্থাৎ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার পরেও যারা সুস্থ হয়ে গেছেন তাদের দেহ কোশে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয় তার থেকে ক্লোনিং করে কৃত্রিম উপায়ে এটি বানানো হয়েছে। এক্ষেত্রে শুধুমাত্র একটি কোষ থেকে অ্যান্টিবডির ক্লোন করা হয়েছে। পলিক্লোনাল অ্যান্টি বডি তৈরি করার ঝক্কি অনেক। তাই অনেক দেহ কোষ নিয়ে স্ক্রীনিং করতে হয়।

কীভাবে এই মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি কাজ করবে সেই সম্পর্কে IIBR জানিয়েছে, সংক্রমিত শরীরের যে ভাইরাল প্রোটিনগুলো ছড়িয়ে পড়ে সেগুলিকে নিষ্ক্রিয় করবে এই অ্যান্টিবডি। শরীরে ঢুকলে ভাইরাস আক্রমণ করবে সে। এই ভাইরাল প্রোটিন যদি কাজ করার ক্ষমতা হারিয়ে যায় তাহলে আর কোন কোষে ঢুকতে পারবে না। এর ফলে সংক্রমণ ওখানেই থেমে যাবে। ‘জেরুসালেম পোস্ট’-এ এই কথা জানিয়েছে আইআইবিআর। ডিরেক্টর স্যামুয়েল সাফিরা এ নিয়ে জানিয়েছেন, এই অ্যান্টিবডি নিয়ে এখনো গবেষণা চলছে। এবং খুব তাড়াতাড়ি এর ফর্মুলার পেটেন্ট তৈরি করা হবে।

কীভাবে করোনাভাইরাস মোকাবিলা করা যায় সেই নিয়ে নানান গবেষণা চালাচ্ছে ইজরায়েল সরকার। কিন্তু গবেষণার কোনো খবর সামনে আনছে না। এর আগেও একবার কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে ইজরায়েলের বিজ্ঞানীরা কিছু তথ্য প্রকাশ করেছিলেন। তবে সেই ব্যাপারে বিস্তারিত ভাবে কিছু জানা যায়নি। বর্তমানে অ্যান্টিবডির খবর দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ঘোষণা করলেও এর প্রয়োগ কবে থেকে শুরু হবে বা আদেও ট্রাইল শুরু হয়েছে কীনা সেই সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।