মোহাম্মদ সামীকে বাদ দিয়ে আনা হলো এই ক্রিকেটারকে।

বুধবারের বিশাখাপত্তনমের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে হারতে পারতো ভারত। তবে কোন রকম জোড় দিয়ে ম্যাচটি টাই করতে সক্ষম হয়েছে ভারত। সেই দিনের ম্যাচে যদি ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে ভারত হারের সম্মুখীন হতো তবে ভারত 1-0 এর লিড হারিয়ে ফেলত এবং স্কোর বোর্ড 1-1 এর হত। পরবর্তী তিনটি ওয়ানডে ম্যাচের জন্য বৃহস্পতিবার 15 জনের একটি টিম তৈরি করা হয়। এই 15 জনের টিম থেকে বাদ বাংলার মোহাম্মদ সামি। মোহাম্মদ সামির পরিবর্তে এবারে দলে সুযোগ দেয়া হল দুজন অত্যন্ত জনপ্রিয় ফাস্ট বলার জাসপ্রিত বুমরা এবং ভুবনেশ্বর কুমার কে। এক্ষেত্রে বাকি পুরো দলই অপরিবর্ত শুধুমাত্র মোহাম্মদ সামি কে দেয়া হলো দল থেকে বাদ।


ইন্ডিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা ঘোষিত দলটি হলো:-
১) বিরাট কোহলি (ক্যাপ্টেন)
২) রোহিত শর্মা (ভাইস ক্যাপ্টেন)
৩) শেখার ধাওয়ান
৪) আম্বাতি রাইডু
৫) মহেন্দ্র সিং ধোনি
৬) ঋষাভ পন্থ
৭) কুলদীপ যাদব
৮) রবীন্দ্র জাদেজা
৯) যুগবেন্দ্র চাহাল
১০) ভুবনেশ্বর কুমার
১১) জাসপ্রিত বুমরা
১২) খালিল আহমেদ
১৩) উমেশ যাদব
১৪) কে এল রাহুল
১৫) মনিশ পান্ডে
‌‌
মোহাম্মদ সামি গুহাটিতে 81 রান দিয়ে 2 উইকেট নিয়েছেন, বিশাখাপত্তম নামে 51 রান দিয়ে 1 উইকেট নিয়েছেন। এই বোলিং পারফরম্যান্স এর জন্যই তাকে দল থেকে দেওয়া হয়েছে বাদ এমনটাই খবর মিলছে তবে একজন সিনিয়র বলার কে এভাবে বাদ দেওয়া কি উচিত? এমনকি বাতিল খালিল আহমেদকেউ এই দলে লিস্টে রাখা হয়েছে অথচ বাদ মোহাম্মদ সামি।


সূত্রের খবর শেহোপ এবং সিমরান হেটমেয়াদ ভারতীয় বোলারদের তুলনা করেছেন সেই তুলনার উপর ভিত্তি করেই ভারতীয় টিম নির্বাচন কমিটি এই টিমটি তৈরি করতে বাধ্য হয়েছে। তাদের অনুরোধ এই জাসপ্রিত বুমরা এবং ভুবনেশ্বর কুমার কে ফিরিয়ে আনা হয়েছে দলের।বোঝা যাচ্ছে যে এই দুই চোর বলার অবশ্যই প্রথম 11 তে থাকবে ক্রিকেটারের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য দলকে 14 থেকে 15 জনের করা হলো এক্ষেত্রে আরও একটি সিনিয়র বলার দলে রেখে অর্থাৎ মহম্মদ শামিকে রেখে দলটি 16 জনের করা যেত।তবে এই দুই জোর বলার কে দলে আনা নিয়ে কোন দ্বিধা নেই, অবশ্যই দুজনাই খুব ভালো বোলিং করে থাকে।

Related Articles

Close