23 শে আগস্ট UAE- দেশের সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ার্ড পেতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি..

যেমন কী আমরা সকলেই জানি ভারতের কাশ্মীর ইস্যুকে নিয়ে পাকিস্তান রাষ্ট্র সংঘের কাছে ভারতকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিল তবে সেখানে চীন ছাড়া অন্য কোন দেশ পাকিস্তানের সাথে দাঁড়াতে রাজি হয়নি।তবে চীন একমাত্র পাকিস্তানের সাথে দাড়িয়ে ছিল এর মূলত কারন পাকিস্থানে চীন বহু পরিমাণে ইনভেসমেন্ট করেছে। অন্যদিকে এই কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে ইসলামিক দেশ গুলি একের পর এক ঝটকা দিয়ে দূরে সরে গেছে।

এক্ষেত্রে পাকিস্তান আশা করেছিল যে ইসলামিক দেশ গুলো হয়তো তাদের পাশে দাঁড়াবে কিন্তু কোন ইসলামিক দেশ পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে রাজি হয়নি বরং এই ইসলামিক দেশ গুলি ভারতের সাথে দাঁড়িয়ে ভারতের নেওয়া এই পদক্ষেপ কে সমর্থন করছে।তবে এখানেই শেষ নয় সৌদি সংযুক্ত আরব আমিরাত ইত্যাদি কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানকে সমর্থন করতে অস্বীকার করেছে আর এই নিয়ে পাকিস্তানের মিডিয়া ও সরকার খুব উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

তবে এখন যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেটি শুনে পাকিস্তানের সরকার ও মিডিয়ার ঘুম উড়ে গেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে UAE এ সরকার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তাদের সবচেয়ে বড় পুরস্কার দেবে। 23 আগস্ট, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরে যাচ্ছেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ছাড়াও তিনি বাহরাইন সফর করবেন বলে জানা যাচ্ছে। প্রাপ্ত খবর থেকে জানতে পারা যাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে “জায়েদ অফ অর্ডার”দিয়ে সম্মানিত করতে চলেছে।তবে জানিয়ে দি ভারতের কাছে ভারতরত্ন পুরস্কার যেমন গুরুত্বপূর্ণ ঠিক সেইরকম UAE কাছে “জায়েদ অফ অর্ডার” ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। এর আগে সৌদি আরব মোদিকে দেশের সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ার্ড দিয়েছেন।

আর এবার UAE প্রধানমন্ত্রী মোদী কে পুরস্কৃত করতে চলেছেন। দীর্ঘদিন ধরে আরব আমিরশাহীর সঙ্গে বন্ধুত্ব অটুট রাখার জন্যই দেওয়া হচ্ছে এই বিশেষ সম্মান। মোদীকে এই সম্মান প্রদান প্রসঙ্গে আরব আমিরশাহীর যুবরাজ শেখ মহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহয়ান জানিয়েছিলেন, দুই দেশের সম্পর্কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। এক সময় ছিল যখন পাকিস্তান মনে করতো সৌদি আরব, UAE তাদের বড়ো বন্ধু। কিন্তু এখন নরেন্দ্র মোদী এসে পরিস্থিতি পরিবর্তন করে দিয়েছেন। পাকিস্তান একটি ইসলামিক দেশ হওয়া সত্বেও সৌদি আরব, UAE দেশগুলির সমর্থন পাচ্ছে না। অন্যদিকে মোদীকে বড়ো বড়ো এওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হচ্ছে। এখন নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী তাই মোদীকে সন্মান করার অর্থৎ পুরো ভারতের দিকে ঝুঁকে থাকা।

Related Articles

Close