অ্যাকশন শুরু মোদি সরকারের, গুজব ছড়ানোর দায়ে 8 টি কাশ্মীরি টুইটার অ্যাকাউন্টকে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল মোদি সরকার..

কয়েকদিন আগে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে কাশ্মীর ইস্যুতে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমকে ভুল তথ্য পরিবেশিত করার দরুন কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছিল।এবং তাদের বলা হয়েছিল এভাবে তারা যদি বিভ্রান্তিমূলক কোন খবর ছড়ানোর চেষ্টা করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে এবার কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে কেন্দ্রের তরফ থেকে।গত শনিবার দিন কাশ্মীরের এক অশান্তি ছড়ানোর খবর প্রকাশিত করেছিল বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম আর এই খবরটি ছিল সম্পূর্ণ বিভ্রান্তিমূলক আর তারপরই কেন্দ্র সরকার নিয়েছিল এই পদক্ষেপ।

তবে এবার যে খবরটি উঠে আসছে এটি কোন সংবাদ মাধ্যম দ্বারা ছড়ানো খবর নয় এবার কাশ্মীর নিয়ে ভুয়ো-খবর ছড়ানোর অভিযোগে 8 টি কাশ্মীরি টুইটার একাউন্ট কে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মোদি সরকারের তরফ থেকে।দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে টুইটার সংস্থার উদ্দেশ্যে এই বিশেষ অনুরোধ করা হয়। এখানে লেখা রয়েছে কাশ্মীরের আটটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ভুয়া খবর ছড়ানো হচ্ছে এবং সেখানকার মানুষকে বিভ্রান্ত করে তোলার চেষ্টা চলছে এর জেরে কাশ্মীরের শান্তি পরিবেশে অশান্তি ঘটতে পারে।

তাই এই আটটি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হোক।যেমন কি আপনারা জানেন এবার ভুয়ো খবর ছড়ানোর জন্য কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে মোদি সরকারের তরফ থেকে। আর এবার কাশ্মীর থেকে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে টুইটার একাউন্টের মাধ্যমে এবং সেগুলি পরিচালনা করা হচ্ছে সেই কাশ্মীর থেকেই। আর তার দরুন এই টুইটার একাউন্ট গুলোকে অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি লিখলেন মোদি সরকার।তবে বলে রাখি এই ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে সেখানকার এক বিচ্ছিন্নবাদি নেতা সৈয়দ আলী গিলানির বিরুদ্ধেও। গত 5 ই আগস্ট কাশ্মীরের 370 ধারা বিলোপ করা ঘোষণা করা হয়েছিল এবং তার পরেই সেখানকার বন্ধ রাখা হয়েছিল ইন্টারনেট পরিষেবা কে, সাথে বন্ধ রাখা হয়েছিল টেলিফোন পরিষেবা কেউ।

তবে এখন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে উপত্যকায় পরিস্থিতি এখন শান্তিপূর্ণ রয়েছে। তবে উপত্যকায় এলাকা শান্তিপূর্ণ থাকা সত্ত্বেও সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু ব্যাক্তি একাধিক ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দিচ্ছে।10,000কাশ্মীরি শ্রীনগরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে বলে ও ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে পরিস্থিতি একেবারে শান্তিপূর্ণ এবং নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে প্রশাসনের তরফ থেকে এ কথা জানানো হয় কিছু ব্যক্তি সেখানে উস্কানি দিতে শুরু করেছে যার ফলে টুইটার কর্তৃপক্ষকে চিঠি লিখে সন্দেহজনক একাধিক একাউন্ট গুলোকে বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে সরকারের তরফ থেকে।

যেমন কী জানেন গত 5 ই আগস্ট বাতিল করা হয়েছে জম্মু কাশ্মীরের 370 ধারা কে আর তারপরই জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করেছেন নরেন্দ্র মোদি সরকার।

Related Articles

Close