চীনকে উচিত শিক্ষা দিতে মোদী সরকার লাদাখের জন্য বানালেন নতুন মাস্টার প্ল্যান, এবার…

ভারত-চীন সীমান্ত বিপদের মধ্যেই মোদী সরকার ভারতীয় রেলপথ লেহ লাদাখে বিশ্বের সর্বোচ্চ রেলপথ স্থাপন করতে চলেছেন। যদিও এই মুহূর্তে দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে যে উত্তেজনা ছিল সেটি মিটমাট হয়ে গেছে এবং চীনা সেনারা এক্ষেত্রে গালওয়ান উপত্যকার LAC থেকে পিছু হটেছে, যদিও এক্ষেত্রে চীনা সেনারা পিছু হেঁটেছে তবে এখনো পর্যন্ত তারা ভারতের একাধিক নির্মাণকাজে আপত্তি জানাচ্ছে। তবে এবার লেহ- লাদাখের সর্বোচ্চ রেললাইন তৈরি করতে যাচ্ছে ভারত…

ভারতের জন্য, বিলাসপুর- মানালি- লেহ প্রকল্পটি কৌশলগত দিক থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে আর ইতিমধ্যে এই রেলপথটি 1500 কিলোমিটার রেল বিভাগের সমতলকরণ সমাপ্ত করেছে। একই সঙ্গে, হিমাচল প্রদেশের বিলাসপুর থেকে লেহ টাউনের মধ্যে 475 কিলোমিটার দীর্ঘ ব্রডগেজ ট্র্যাক রাখার কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও এক্ষেত্রে করোনা সংক্রমনের জেরে নির্মাণকার্য বন্ধ রাখা হয় কিন্তু তখনও এক্ষেত্রে রেল লাইনের কাজ অবিচ্ছিন্নভাবে অব্যাহত ছিল। তাছাড়া লাদাখের নিয়ন্ত্রণ পয়েন্টের অবস্থানগুলি সনাক্ত করতে সরকার 475 কিলোমিটারের মোট রেল রুটের কাজ শেষ করেছে।

আরো বলে রাখি এর আওতায় সেতু, টানেল, স্টেশন গুলিতে 184 টি নিয়ন্ত্রণ পয়েন্ট সহ 89 টি অবস্থান চিহ্নিত করা হয়েছিল। আর এক্ষেত্রে এই বিভাগের 1500 কিলোমিটার রুটের তৃতীয় পর্যায়ের সমতলকরণ সমাপ্ত করা হয়েছে। অন্যদিকে সংবাদমাধ্যমের কাছে এ বিষয়ে তথ্য দিতে গিয়ে উত্তর রেলওয়ের মহাপ্রবন্ধক রাজীব চৌধুরী জানিয়েছেন, নির্মাণ টিম নিম্ন তাপমাত্রা এবং কম অক্সিজেনের স্তর সহ বিশ্বের অন্যতম সর্বোচ্চ পাসের সমতলকরণ কাজ শেষ করেছে। তাছাড়া আরো জানান যে এই রেলওয়ে নির্মাণের সময় প্রযুক্তিগত সহায়তার জন্য একটি পরামর্শদাতার গ্রুপও গঠন করা হয়।

তবে শুধু রেলপথ নির্মাণেই নয় এর পাশাপাশি এখানে আরো 10 টি বড় সেতুর নির্মাণ করার পরিকল্পনাও রয়েছে। আর সূত্রের খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে তাদের মোট দৈর্ঘ্য হতে পারে 23 কিলোমিটার।তবে শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি আরও 31 টি রেল স্টেশন নির্মাণেরও প্রস্তাব করা হয়েছে যার মোট দৈর্ঘ্য হবে 33 কিলোমিটার।আর এগুলো সম্পূর্ণ করার জন্য রেলওয়ের তরফ থেকে আনুমানিক 68,000 কোটি টাকা খরচ করা হবে। আর যদি এটি সম্পূর্ণ হয়ে যায় তাহলে ভারত বিশ্বের সর্বোচ্চ রেললাইন তৈরির রেকর্ড অর্জন করবে আগামী দিনে।