Uncategorized

লোকসভা ভোটের আগেই মোদি সরকারের বড় সিদ্ধান্ত। এবার থেকে সহজে কর্মচারীদের চাকরি কেড়ে নিতে পারবে না প্রাইভেট কম্পানি গুলি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবার চাকরি করা ব্যাক্তিদের জন্য নিয়ে এলেন একটি নতুন সিদ্ধান্ত যার দরুন সুফল মিলবে তাদের । আর  এটি শুরু হবে লোকসভার নির্বাচনের আগেই। যেসকল সাধারণ মানুষেরা কোনো প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করেন এই যোজনাটি কেবলমাত্র তাদের জন্য এবং তারা সরাসরি ভাবে এর লাভ উঠাতে পারবেন। কম্পানি বন্ধ করা এবং অকারণে কর্মচারীদের কম্পানি থেকে বিতাড়িত করা এইসকল বিষয়ের জন্য সরকারের এই নিয়মটি। এমন অনেক কোম্পানি আছে যারা  অনেক সময়  চাকরি গুলি বাতিল করে দেয় যার দরুন সাধারন নাগরিক’রা বেশকিছু সমস্যার সম্মুখীন হন।

এই সকল সমস্যার সমাধান করার জন্য মোদি সরকার শ্রম আইনের মধ্যে কিছু পরিবর্তন এনেছেন। এই নতুন নিয়মের শর্তাবলী অনুযায়ী বলা হচ্ছে , যে সকল কোম্পানিগুলোতে ১০০ এর বেশি কর্মচারী আছে, তাদের কোনো ব্যাপারে অ্যাকশন নেওয়ার আগে অবশ্যই সরকারের কাছে অনুমতি নিতে হবে অর্থাৎ যেকোনো জরুরি সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগেই সরকারের অনুমতি লাগবে । কম্পানি বন্ধ হওয়ার ভয় দেখিয়ে কর্মচারীদের চাকরি থেকে বিতাড়িত করা চলবে না। এছাড়াও সরকার ক্লোজার ল অফ রিট্রেচমেন্ট এ কিছু নতুন পরিবর্তন  নিয়ে এসেছে,কোড অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিলেশনশিপ এর ওপর ভিত্তি করেই সরকার এই নিয়মে পরিবর্তন এনেছে। এছাড়াও সরকার ড্রাফট বিলে কর্মচারীদের সংখ্যা ১০০-৩০০ এর মধ্যে করেছিল ,এতে ট্রেড ইউনিয়ন এর অসন্তুষ্টত থাকায় ড্রাফট বিলটি ক্যাবিনেটে পাঠানো হয়েছিল।

এছাড়াও জানা যাচ্ছে যে, সরকার ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে একটি নতুন কোডের মঞ্জুরি দিবেন।তবে আপনারা কি জানেন সরকার এরই আগে আরেকটি ঘোষণা করেছিল সেটি হল,যেসকল কম্পানি গুলিতে ১০ জনেরও অধিক কর্মচারী তাদেরকে স্বাস্থ্য পরিষেবার সুযোগ – সুবিধা দিতে হবে এবং একইসঙ্গে  প্রত্যেক কর্মচারীদের তাদের নিযুক্ত পত্র অবশ্যই দিতে হবে কিন্তু এই নিয়মটি ঠিক ভাবে কোনো কোম্পানি মানেনি। মোদি সরকার যখন থেকে দেশের ভার সামলেছেন তখন থেকে দেশবাসীকে কল্যাণের জন্য নতুন নতুন নিয়ম লাগু করে চলেছেন। যার মধ্যে আরো দু’তিনটি ঘোষণা রয়েছে প্রাইভেট কোম্পানিতে কাজ করা কর্মচারীদের জন্য।

মোদি সরকারের এই ঘোষণা আপনাদের কেমন লেগেছে তা আমাদের অবশ্যই জানাবেন। আরো এরকম নতুন নতুন খবরে আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পোর্টাল টিতে।

Related Articles

Back to top button